Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট, ২০১৯ ১৪:৪৩

স্পিডবোটডুবির ৩ ঘণ্টা পর কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে যান চলাচল স্বাভাবিক

মাদারীপুর প্রতিনিধি

স্পিডবোটডুবির ৩ ঘণ্টা পর কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে যান চলাচল স্বাভাবিক
ফাইল ছবি

কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটের মাঝ পদ্মায় ১৮ জন যাত্রী নিয়ে একটি স্পিডবোট ডুবির ঘটনা ঘটেছে।
শিমুলিয়া থেকে যাত্রীবাহী একটি স্পিডবোট কাঁঠালবাড়ী ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসলে মাঝ পদ্মায় ঢেউয়ের কবলে পরে স্পিডবোট ডুবে যায়। এ ঘটনায় স্পিডবোটের কয়েকজন যাত্রীর নিখোঁজ থাকার কথা শোনা যাচ্ছে। এদিকে, দুর্ঘটনার পর লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ ছিল। তবে প্রায় ৩ ঘণ্টা পর এসব যান চলাচল শুরু হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি'র কাঁঠালবাড়ী ঘাট সূত্র জানিয়েছে, সকালে শিমুলিয়া ঘাট থেকে ২০ জন যাত্রী নিয়ে একটি স্পিডবোট কাঁঠালবাড়ী ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। মাঝ পদ্মায় আসল। ঢেউয়ের ধাক্কায় স্পিডবোটটি উল্টে যায়। এ সময় স্পিডবোটের ১৮ জন যাত্রী পানিতে ডুবে যায়। ঘাট থেকে অন্য স্পিডবোট গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। এ সময় কয়েকজন যাত্রী নিঁখোজ রয়েছে বলে ঘাটের একাধিক সূত্র জানিয়েছে। তবে বিআইডব্লিউটিসি'র কাঁঠালবাড়ী ঘাটের একটি সূত্র জানিয়েছে, ১ জন নিঁখোজ রয়েছে এ ঘটনায়। তার নাম রনি( ৮)। নিহতের বাবা সিদ্দিকুর রহমান। মিরপুরে তাদের বাসা। সে শিমুলিয়া ঘাট থেকে পরিবারের সদস্যদের সাথে কাঁঠালবাড়ি ঘাট হয়ে বরিশালে বেড়াতে যাচ্ছিল।

বিআইডব্লিউটিসি'র কাঁঠালবাড়ী ঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন বলেন, 'সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শিমুলিয়া থেকে আসা স্পিডবোটটি মাঝ পদ্মায় ডুবে যায়। অন্যান্য যাত্রীদের উদ্ধার করা হয়েছে। তবে একজন যাত্রী নিঁখোজ রয়েছে বলে জানতে পেরেছি। বৈরি আবহাওয়ার জন্য সকাল পৌনে  টা থেকে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ ছিল।' তবে দুপুরে আবহওয়া কিছুটা স্বাভাবক হলে দুপুর ১২টা থেকে লঞ্চ চলাচল শুরু করে।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য