Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২২:২৫

বিপদসীমার কাছে তিস্তার পানি, বাঁধ ভেঙে শতাধিক পরিবার পানিবন্দি

লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

বিপদসীমার কাছে তিস্তার পানি, বাঁধ ভেঙে শতাধিক পরিবার পানিবন্দি

তিন দিনের টানা বর্ষণ ও উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। তিস্তার পানির প্রবল স্রোতে ডান তীর বাঁধ ভেঙে প্রায় ৫ শতাধীক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। 

তিস্তা ব্যারাজ এলাকায় তিস্তার পানি বিপদসীমা ছুই ছুই করছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে পানি বিপদসীমার ৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লালমনিহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় তিস্তার ডান তীরের দক্ষিণ ধুবণী এলাকার একটি বাঁধ ভেঙ্গে প্রায় ৫ শতাধীক পরিবার পানি বন্দি হয়ে পড়ে। লালমনিরহাটের ২টি উপজেলার তিস্তা অববাহিকার চরাঞ্চল ও নিম্নাঞ্চলগুলো প্লাবিত হয়েছে। এতে প্রায় ৫ শতাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। প্রচুর বৃষ্টিপাতে ফলে ঘর থেকে বেরতে পারছে না। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে তিস্তা পারের মানুষ। 

পাউবো সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকেল থেকে হাতীবান্ধা উপজেলার তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে পানি বিপদসীমার ৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। উজানের ঢলে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।

এ দিকে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম ও হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী, সিংঙ্গীমারী, সিন্দুর্ণা,পাটিকাপাড়া, ডাউয়াবাড়ী এলাকায় বাধ ভেঙ্গে গিয়ে ৫ শতাধিক পরিবার প্লাবিত হয়েছে। 

এ হাতীবান্ধা উপজেলা প্রকল্প বাস্তাবায়ন কর্মকর্তা ফেরদৌস হোসেন তিস্তার একটি বাঁধ ভাঙ্গে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সার্বক্ষণিক তিস্তাপাড়ের মানুষের খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে। বন্যার্ত পরিবারের জন্য পর্যাপ্ত ত্রাণ মজুদ রয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া ডিভিশনের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান বলেন, ভারী বর্ষণে উজানের পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে ব্যারাজের ৪৪টি সুইচ গেট খুলে দেওয়া হয়েছে।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য