শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২০:১৮
আপডেট : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২১:৩১

৩২ বছর পালিয়ে ধরা পড়ল আসামি!

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:

৩২ বছর পালিয়ে ধরা পড়ল আসামি!

আসামি মতিন (৫০)। স্ত্রীকে হত্যা করেছিল ৩২ বছর পূর্বে। সেই হত্যা মামলায় আদালত তাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডে দন্ডিত করেন। কিন্তু দন্ডিত হওয়ার পর আড়াই যুগের বেশী অর্থ্যাৎ ৩২ পার করে দেন পালিয়ে। কিন্তু পার পাননি মতিন। শেষতক পুলিশের হাতে ধরা পড়েছেন দীর্ঘকাল ধরে পালিয়ে থাকা আসামি মতিন। সোমবার দুপুর ১২ টায় নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার কালাপাহাড়িয়ার বদলপুর এলাকা থেকে মতিনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামি স্থানীয় কালাপাহাড়িয়া ইউপির ঝাউকান্দী এলাকার মৃত জিন্নাত আলীর ছেলে।

এদিকে স্থানীয়রা জানায়, বাংলাদেশে যাবজ্জীন আসামিরা ২৫-৩০ বছর জেল খেটেই হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে বের হয়ে যায়। আবার কারো এর থেকেও কম সময়ও লাগে। কিন্তু মতিন তার যাবজ্জীবন তো পালিয়েই কাটিয়ে দিল।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮৮ সালে পারিবারিক কলহের জেরে মতিনের স্ত্রী জান্নাতকে গলা টিপে হত্যা করে । পরে নিহতের মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচারের চেষ্টা করা হয়। স্ত্রী জান্নাত একই ইউপির হাজীরটেক এলাকার ফয়জ উদ্দিনের মেয়ে। পরে এ ঘটনায় আড়াইহাজার থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, ১৯৯১ সালে নারায়ণগঞ্জের আদালত থেকে ধৃত আসামির বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন দন্ডাদেশ দেওয়া হয়। এর পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন।

তিনি আরো বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কালাপাহাড়িয়ার বদলপুর এলাকা থেকে স্থানীয় তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ আসামিকে গ্রেফতার করে। আসামিকে নারায়ণগঞ্জের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার


আপনার মন্তব্য