শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ আগস্ট, ২০২০ ১৮:২১

গলাচিপায় কীটনাশক খেয়ে কিশোরী ও যুবকের আত্মহত্যা

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

গলাচিপায় কীটনাশক খেয়ে কিশোরী ও যুবকের আত্মহত্যা
প্রতীকী ছবি

পটুয়াখালী গলাচিপায় পৃথক স্থানে আলাদা ঘটনায় একদিনে এক কিশোরী ও এক যুবক কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি দুটি ঘটেছে গতকাল সোমাবার (৩ আগস্ট) উপজেলার চিকনিকান্দি ও গজালিয়া ইউনিয়নে। গলাচিপা থানা পুলিশ সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

পুলিশ  জানায়, গলাচিপার গজালিয়া ইউনিয়নের ইচাদী গ্রামের শাহীন খানের মেয়ে অন্তরা (১৬) সোমবার বিকেলে পারিবারিক কলোহের জের ধরে  কীটনাশক (বিষ ট্যাবলেট) খায়। পরিবারের লোকজন অসুস্থ অবস্থায় দেখে সোমবার বিকেলে গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী জেলা হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। রাতে অন্তরার অবস্থার আরো অবনতি হলে ওই রাতেই পটুয়াখালী থেকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বরিশাল নেয়ার  পথে রাতেই অন্তরার মৃত্যু হয়। 

অপরদিকে, উপজেলার চিকনিকান্দি ইউনিয়নের কোটখালী গ্রামের রনি মোল্লার ছেলে রাসেল মোল্লা (২৫) পারিবারিক কলোহের জের ধরে কীটনাশক (বিষ ট্যাবলেট) খায়। পরিবারের লোকজন দেখতে পেয়ে সোমবার দুপুরে গলাচিপা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। গ্রামবাসী জানায়, রাসেল দুই বিয়ে করায় তার পরিবারের মধ্যে প্রায়ই অশান্তি লেগে থাকতো।

এ দুটি ঘটনায় আজ মঙ্গলবার পুলিশ আলাদা দুটি ইউডি করেছে। দুইটি লাশই ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্তরার আত্মহত্যা প্রসঙ্গে গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য উন্মোচন হবে।


বিডি-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর