শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ ডিসেম্বর, ২০২০ ২০:১৬
প্রিন্ট করুন printer

টাঙ্গাইলে ট্রাকের ধাক্কায় বাসের ছয় যাত্রী নিহত

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলে ট্রাকের ধাক্কায় বাসের ছয় যাত্রী নিহত

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুরে বিকল হয়ে রাস্তায় পাশে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীবাহী বাসকে সবজিবাহী ট্রাক ধাক্কা দিলে ৬ জন নিহত ও কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সায়েদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতদের মধ্যে পাঁচজন রংপুরের ও একজন রাজশাহীর। রংপুরের চারজন হলেন পিরোজপুর উপজেলার জাহাঙ্গীরবাগ এলাকার রওশন আলী স্ত্রী মোছা. রেশমী, কদরপাড়া এলাকার রিপন মিয়ার স্ত্রী চন্দনা, হরিরাম শাহপুর এলাকার মো. এমদাদুল ইসলামের ছেলে মো. রাশিদুল ইসলাম (৩০), পীরগঞ্জ উপজেলার ধললাকান্দি এলাকার জয়নাল হোসেনের ছেলে মো. আশরাফুল ইসলাম (৩৫), একই গ্রামের পঙ্কজ আলীর ছেলে মো. রিয়াজুল ইসলাম (৩১) ও রাজশাহীর বোয়ালিয়া উপজেলার মতিয়াবিল এলাকার জালাল উদ্দিনের ছেলে মো. হৃদয় (২০)।

শুক্রবার সকাল সাতটার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে উপজেলার কুর্ণী এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই স্থানে ঢাকাগামী সেবা ক্লাসিক পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসের বিকল চাকা চালকের সহকারীরা মেরামত করছিলেন। এ সময় যাত্রীদের অনেকে বাস থেকে নিচে নেমে দাঁড়িয়েছিলেন। এ সময় হঠাৎ থেমে থাকা বাসটিকে পেছন থেকে সবজি বোঝাই একটি ট্রাক ধাক্কা দেয়।

এতে বাসের সামনের অংশ রাস্তার পাশের একটি ঘরের দেয়াল ভেঙে ভেতরে ঢুকে যায় এবং ট্রাকের সামনের অংশ বাসের পেছনে ধাক্কা লাগলে বাসের পেছন ও ট্রাকের সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায়। ফলে ঘটনাস্থলেই নারীসহ বাসের চার যাত্রী নিহত হন। আহত মানুষের আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। খবর পেয়ে মির্জাপুর থানা, গোড়াই হাইওয়ে থানা, ট্রাফিক পুলিশ ও মির্জাপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার কাজে অংশ নেন।

গোড়াই হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোজাফফর হোসেন দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রংপুর থেকে ছেড়ে আসা সেবা ক্লাসিক পরিবহনের একটি বাস কুর্ণী এলাকায় বিকল হয়ে পড়ে। পরে মেরামতের জন্য বাসটি রাস্তার পাশে দাঁড় করানো হয়। সকাল সাতটার দিকে ঢাকাগামী সবজিভর্তি এক ট্রাক বাসটিকে ধাক্কা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

মির্জাপুর ফায়ার স্টেশনের স্টেশন অফিসার সুশান্ত কুমার দে মন্ডল বলেন, সংবাদ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। এরপর সেখান থেকে চারটি লাশ উদ্ধার করি। আহতদের কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর