শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ এপ্রিল, ২০২১ ১৬:৩৮
প্রিন্ট করুন printer

সুবর্ণচরে চাঁদা না পেয়ে পোল্ট্রি ব্যবসায়ীর উপর হামলার অভিযোগ

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

সুবর্ণচরে চাঁদা না পেয়ে পোল্ট্রি ব্যবসায়ীর উপর হামলার অভিযোগ

নোয়াখালীর সুবর্ণচরের হালিম বাজারে চাঁদা না দেওয়ায় পোল্ট্রি ব্যবসায়ীর উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। দাবিকৃত টাকা না দেওয়ায় মোঃ সিরাজ ও মোঃ মোশারফ এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ করেন পোল্ট্রি ব্যবসায়ী সবুজ।

চর জুবলী ইউনিয়নের হালিম বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী সবুজ বাদী হয়ে চরজব্বর থানায় সিরাজ ও মোশারফকে আসামি করে একটি এজাহার দাখিল করলেও এক সপ্তাহ পরেও পুলিশ মামলা রেকর্ড করেনি বলে অভিযোগ করেন পোল্ট্রি ব্যবসায়ী।

দুপুরে জেলা সাংবাদিকদের নিকট এমন অভিযোগ করেন এ পোল্ট্রি ব্যবসায়ীর পরিবার। বর্তমানে তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে দাবি করেন।

এ বিষয়ে হামলার স্বীকার কাটা বুনিয়া গ্রামের খলিল উল্যাহর ছেলে ব্যবসায়ী সবুজ জানান, বিগত কয়েক মাস ধরে স্থানীয় ফয়েজ আহাম্মদের ছেলে সিরাজ ও আব্দুল জলিলের ছেলে মোশারফ আমার কাছে মোটা অংকের টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে। তারা হুমকি দিয়ে বলে হালিম বাজারে ব্যবসা করতে হলে তাদেরকে পাঁচলক্ষ টাকা চাঁদা দিতে হবে, অন্যথায় আমাকে ব্যবসা করতে দিবে না। বেশি বাড়াবাড়ি করলে আমাকে প্রাণনাশের হুমকিও দেয় তারা। চাঁদা না দেয়ায় দুই ধাপে গত ১৮ মার্চ ও ১৩ এপ্রিল রাতে হালিম বাজারে রুহুল আমিনের চা দোকানের সামনে সিরাজ ও মোশারফ আমাকে একা পেয়ে গতিরোধ করে  এবং এলোপাতাড়ী মারধর করে গুরুতর আহত করে ও পকেট থেকে নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়, এক পর্যায়ে আমার শোর-চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে সিরাজ ও মোশারফ হুমকি-ধামকি দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় স্থানীয় লোকজন আমাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।এবিষয়ে চরজব্বর থানায় গত ১৪ এপ্রিল সবুজ বাদী হয়ে একটি এজাহার দাখিল করেন।

চরজব্বর থানার ভরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ জিয়াউল হক জানান, দুই পক্ষই পোল্ট্রি ব্যবসায়ী, তাদের মধ্য হাতাহাতি হয়েছে। তবে চাঁদা দাবির ঘটনা সঠিক নয়, এঘটনায় তদন্ত চলছে।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর