শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ মে, ২০২১ ১৯:০২
প্রিন্ট করুন printer

ফেনীতে নির্মাণ শ্রমিক খুন, ২৭ দিন পর লাশ উদ্ধার

ফেনী প্রতিনিধি

ফেনীতে নির্মাণ শ্রমিক খুন, ২৭ দিন পর লাশ উদ্ধার
প্রতীকী ছবি
Google News

ফেনীতে প্রতিহিংসার জেরে পরিকল্পিতভাবে ইয়াছিন নামে এক নির্মাণ শ্রমিককে খুন করা হয়েছে। ২৭ দিন পরশুরামের ভারতীয় সীমান্তবর্তী রাঙ্গামাটিয়া গ্রাম থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ইয়াছিন মির্জানগর ইউনিয়নের মধ্যম রাঙ্গামাটিয়া গ্রামের মো. হাসানের ছেলে।

সোমবার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে পুলিশ সুপার খোন্দকার নুরুন্নবী এতথ্য জানান। তিনি বলেন, খুব বেশি কাজ পেত নির্মাণ শ্রমিক ইয়াছিন। এতে প্রতিহিংসা পরায়ণ হন সেলিম নামে অপর এক শ্রমিক। তাকে ১৩ এপ্রিল কৌশলে এক নারীকে দিয়ে ফোন করে শহরের বনানী পাড়ায় মোশারফ হোসেন নামে এক ব্যক্তির বাসায় নিয়ে আসেন সেলিম। সেখানে ৫-৬ জনে মিলে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বস্তায় ভরে ফেলেন। রাতে জামাল নামে একজনের সিএনজিচালিত অটোরিকশা করে পরশুরামের ভারতীয় সীমান্তবর্তী রাঙ্গামাটিয়া গ্রামে নিয়ে মাটিচাপা দিয়ে আসেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ এপ্রিল ইয়াছিন নিখোঁজ হলে তার ভাই হারুন ১৪ এপ্রিল পরশুরাম থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। গত শনিবার দুপুরের পর থেকে তাদের গ্রামে গুঞ্জন রটে সীমান্তে একটি অজ্ঞাত লাশ রয়েছে। পরে এলাকাবাসী এটি ইয়াছিনের লাশ হবে ভেবে জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনকে জানায়। পরে হারুন বাদী হয়ে রবিবার সেলিম, এমাম হোসেন, সিএনজি চালক জামাল, বাড়ির মালিক মোশারফ হোসেন, কুসুম ও শাহনাজকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ সেলিম ও জামালকে আটক করে। থানা হাজতে থাকা সেলিমের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, পুলিশ ইয়াছিনের মৃতদেহ ২৭ দিন পর উদ্ধার করে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর