শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ মে, ২০২১ ১৯:৩৯
প্রিন্ট করুন printer

নিকলীতে দুপক্ষের সংঘর্ষ; শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ১০

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

নিকলীতে দুপক্ষের সংঘর্ষ; শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ১০
Google News

কিশোরগঞ্জের নিকলীতে জলমহালে বাঁধ দেওয়াকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার বিকালে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় একপক্ষের ছুঁড়া গুলিতে চার শিশু আহত হয়েছে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিকলী উপজেলা সদরের সোয়াইজানি জলমহালটি ছয় বছরের জন্য ইজারা বন্দোবস্ত নেন জাফরাবাদ গ্রামের সাদ্দাম হোসেন। সম্প্রতি ষাইটধার খালিসাহাটি গ্রামের যুবলীগ নেতা নাজিউর রহমান সোহেল জলমহালে বাঁধ দিয়ে পুকুর খননের কাজ শুরু করেন।

এ নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে দুপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। উপজেলা প্রশাসন থেকেও বাঁধ নির্মাণে বাধা দেওয়া হয়। উপজেলা প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার বিকালে নাজিউর রহমান সোহেল ও তার লোকজন জলমহালে গিয়ে সাদ্দাম ও তার ভাইকে মারপিট করেন।

এ সময় উভয়পক্ষ দেশিয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে একটি পক্ষ শটগানের গুলি ছুঁড়লে জলমহালের পাশে খেলতে থাকা জাফরাবাদ গ্রামের কয়েকজন শিশুসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়। গুলিবিদ্ধ দীন ইসলামের ছেলে আকাশকে (১৮) উন্নত চিকিৎসার জন্য কিশোরগঞ্জে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া গুলিবিদ্ধ নূরুল ইসলামের ছেলে রিয়ান (৮) ও মুর্শেদের মেয়ে শ্রাবন্তীকে (৯) নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহত শামসুলের মেয়ে তিশা (১৮), আল আমীনের ছেলে তুহিন (৪), আশরাফুলের ছেলে নিশাসহ (৬) অন্যদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

নিকলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম সিদ্দিকী জানান, নাজিউর রহমান সোহেল তার বিরুদ্ধে কেন অভিযোগ করা হয়েছে, সেটা জিজ্ঞেস করতে যান সাদ্দামের কাছে। কিন্তু সাদ্দাম সোহেলের বিরুদ্ধে কারও কাছে কোন অভিযোগ না দেওয়ার কথা বললেও সোহেল সেটা মানতে রাজি হননি। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে একটি পক্ষ ছরড়া গুলি ছুঁড়ে। এতে কয়েকজন শিশু আহত হয়। তবে কোন পক্ষ গুলি ছুঁড়েছে, সেটা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে ওসি জানান। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন

এই বিভাগের আরও খবর