১৯ আগস্ট, ২০২১ ১৭:৫৮

পিরোজপুরে বাসায় ঢুকে নারী চিকিৎসককে মারধর, গ্রেফতার ২

পিরোজপুর প্রতিনিধি

পিরোজপুরে বাসায় ঢুকে নারী চিকিৎসককে মারধর, গ্রেফতার ২

পুলিশের হাতে গ্রেফতার আসামি।

পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে চিকিৎসকদের সরকারি বাসভবনে নারী চিকিৎসকের ফ্ল্যাটে ডাকাতি ও তাকে মারধর করার ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এসময় তাদের কাছ থেকে ৫টি মোবাইল, ২টি হেস্কো ব্লেড, ৩ হাজার টাকা, ৪৬টি বিভিন্ন কোম্পানির সিম ও ২৫টি মোবাইল চার্জার উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে চিকিৎসক সানজিদা আজাদ শিখার বাসা থেকে নেওয়া দুটি মোবাইল ও নগদ তিন হাজার টাকা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পিরোজপুর সদর থানায় সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইদুর রহমান।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন-খুলনা জেলার মাওলার বাড়ি মোড় পশ্চিম টুটপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমান পেয়াদার ছেলে মো. আবু হানিফ (৩৫) ও বরগুনা জেলার আঙ্গারপাড়া গ্রামের মৃত আমির চৌকিদারের ছেলে মো. আব্দুল করিম মোল্লা (২৫)।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মো. সাইদুর রহমান জানান, চিকিৎসকের বাসায় দস্যুতার ঘটনায় চারজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলায় আসামি আবু হানিফকে খুলনা জেলার টুটপাড়া এলাকা থেকে ১৬ আগস্ট গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্য থেকে আব্দুল করিমকে বরগুনা জেলার আঙ্গারখালী গ্রামের চান্দুখালী বাজার থেকে ১৭ আগস্ট গ্রেফতার করা হয়।

তাদের নামে ডাকাতি, খুন ও অস্ত্রসহ একাধিক মামলা রয়েছে। তাদের কাছ থেকে চিকিৎসকের মোবাইল ফোন ও নগদ টাকাসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা ঘটনার কথা স্বীকার করেছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, বুধবার রাতে জেলা হাসপাতালে চিকিৎসকদের সরকারি বাসভবনের একটি ফ্ল্যাটের জানালার গ্রিল কেটে বাসায় ঢোকে দুর্বৃত্তরা। পরে তারা বাসায় থাকা চিকিৎসক সানজিদা আজাদ শিখাকে মারধর করে আহত করেন এবং নগদ টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন নিয়ে যান। এ ঘটনায় ওইদিন পিরোজপুর সদর থানায় একটি মামলা করা হয়।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর