২৯ জুলাই, ২০২২ ২০:০৩

কালিহাতীতে এক রাতে তিন বাড়িতে ডাকাতি

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

কালিহাতীতে এক রাতে তিন বাড়িতে ডাকাতি

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে একই রাতে তিন বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বাংড়া ইউনিয়নের বড় ইছাপুর গ্রামের মাসুদ, এলেঙ্গা পৌরসভার রৌহা পূর্ব পাড়া এলাকার নুরুল ইসলাম নাহিদ ও একই এলাকার খন্দকার আসাদুজ্জামানের বাড়ীতে ঘটনাগুলি ঘটে। খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মো. শরফুদ্দীন, সহকারী পুলিশ সুপার (কালিহাতী সার্কেল) শরিফুল ইসলাম ও কালিহাতী থানার ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রাত ২টার দিকে ইছাপুরে লোডশেডিং চলছিল। এ সময় ৫-৭ জন মুখোশ পরিহিত ডাকাতদল মাসুদের বাড়ীতে হানা দেয়। এক পর্যায়ে তারা বাড়ীতে থাকা মাসুদ ও পরিবারের অন্য সদস্যদের চোখ বেধে ফেলে। এ সময় তারা ৯ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৪০ হাজার টাকা ও ব্যাংকের চেকবই নিয়ে যায়।
ভুক্তভোগী মাসুদ বলেন, ডাকাত দল আবারো আমাদের বাড়িতে হানা দিবে বলে হুমকি দিয়ে গেছে। আমিসহ বাড়ীর সকল সদস্য আতংকিত রয়েছি।
এর আগে রাত সাড়ে ১২টার দিকে এলেঙ্গা পৌরসভার রৌহা পূর্ব পাড়া গ্রামের নুরুল ইসলাম নাহিদ ও খন্দকার আসাদুজ্জামানের বাড়ীতে হানা দেয় ডাকাতদল। এ সময় তারা নাহিদের বাড়ী থেকে ৪ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ৬৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়। আসাদুজ্জামানের বাড়ী থেকে মোটরসাইলে, টিভি ও স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয় ওই ডাকাত দল।
নাহিদের স্ত্রী বিলকিস খাতুন বলেন, একদল মুখোশধারী ডাকাতরা আমার বাচ্চাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুটে নিয়ে গেছে।

খন্দকার আসাদুজ্জামান বলেন, মুখোশধারী ডাকাত দল আমাদেরকে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একটি মোটরসাইকেল, ৩৬ ইঞ্চি এলইডি টিভি, ৮ আনি স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে গেছে।
এ বিষয়ে কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা আজিজুর রহমান বলেন, ধারনা করা হচ্ছে একটি ডাকাত দলই উপজেলায় ৩টি ঘটনার সাথে জড়িত। খবর পেয়ে আমিসহ পুলিশের উর্ধ্বোতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ বিষয়ে আমাদের তদন্ত চলমান রয়েছে। 

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর