৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২২:১৫

পাথরঘাটায় আওয়ামী লীগ-বিএনপির সংঘর্ষ, সাবেক এমপি মনিসহ আহত অর্ধশত

বরগুনা প্রতিনিধি

পাথরঘাটায় আওয়ামী লীগ-বিএনপির সংঘর্ষ, সাবেক এমপি মনিসহ আহত অর্ধশত

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার রায়হানপুর ইউনিয়নের পাথরঘাটা সীমান্ত ও পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার সিএন্ডবি সীমানায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কর্মীদের মধ্য ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এতে বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি, উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক ফারুক চৌধুরী, সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান, কাকচিড়া ইউপি চেয়ারম্যান, আলাউদ্দিন পল্টু, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বজলুল হকসহ উভয় দলের কমপক্ষে অর্ধশতাধিক আহত হয়েছে। এছাড়া পাথরঘাটা থানার এএসআই এমদাত ও এএসআই কবির আহত হন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি ৫ সেপ্টেম্বর পাথরঘাটায় জনসভা করার ঘোষণা দিয়ে আজ (৪ সেপ্টেম্বর)  মঠবাড়িয়া হয়ে পাথরঘাটার উদ্দেশে রওনা দেন। এসময় তাকে এগিয়ে আনতে শতাধিক মোটরসাইকেল সহ লাঠিসোটা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বিএনপির কর্মীরা শ্লোগানসহ মঠবাড়িয়া সীমানা সিএন্ডবি ব্রিজ এলাকায় অবস্থান নেয়। নুরুল ইসলাম মনিসহ তার গাড়িবহর পাথরঘাটা সীমানায় প্রবেশ করলে স্থানীয়রা বাঁধা দিলে সংঘর্ষ শুরু হয়। অল্প সময়ের মধ্য লাঠিসোটা সহ শতাধিক আওয়ামী লীগ কর্মী প্রতিরোধ করলে ব্যাপক সংঘর্ষ ও ইটপাটকেল ছোড়া শুরু হয়। মনিসহ তার সঙ্গীরা আহতাবস্থায় পালিয়ে মঠবাড়িয়া গিয়ে আশ্রয় নেন।

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাশার জানান, মনি সাহেব আজ কখন আসবেন তাদেরকে অবহিত করা হয়নি। সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বরগুনা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। এসময় শতাধিক মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও আগুন দেয়া হয়। এ ঘটনায় পুলিশ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে। তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

বরগুনা জেলা বিএনপির সভাপতি ফারুক মোল্লা বলেন, এ ধরনের ন্যাকারজনক ঘটনার নিন্দা জানানোর ভাষা জানা নেই। তবুও আমরা এই বর্বরোচিত ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

সর্বশেষ খবর