১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৭:০৫

নিরাপদ সড়ক ও দিনে ভারী যানবাহন বন্ধসহ ১০ দাবিতে দিনাজপুরে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

দিনাজপুর প্রতিনিধি

নিরাপদ সড়ক ও দিনে ভারী যানবাহন বন্ধসহ 
১০ দাবিতে দিনাজপুরে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

নিরাপদ সড়ক চাই, দিনের বেলায় শহর এলাকায় ভারী যানবাহন বন্ধসহ ১০ দাবিতে মানববন্ধন ও মিছিল করেছে দিনাজপুরের সেন্ট ফিলিপস্ হাই স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীবৃন্দ। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের নিকট একটি স্মারকলিপি প্রদান করে। 

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় সেন্ট ফিলিপস্ হাই স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীবৃন্দ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এই মানববন্ধন পালন এবং শেষে জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন। 
জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকির শিক্ষার্থীদের সামনে উপস্থিত হয়ে স্মারকলিপিটি গ্রহণ করেন এবং শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমরা বসবো এবং তোমাদের এই দাবি গুলো নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে গৃহীত করার জন্য প্রচেষ্টা চালাবো।

শিক্ষার্থীরা জানায়, গত ১১সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় সেন্ট ফিলিপস্ হাই স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণীর মেধাবী শিক্ষার্থী মোঃ ফায়াজ আল গালিব টিউশন সেরে বাইসাইকেলযোগে বাড়ি যাওয়ার পথে শহরের বালুবাড়ী এলাকায় নিমকালী মন্দির মোড় এ ট্রাকের সাথে ধাক্কা লেগে নিহত হয়। এরই পরিপেক্ষিতে শহরের যানজট নিরসন, নিরাপদ সড়ক প্রদান এবং দিনের বেলা ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধসহ ১০ দাবি নিয়ে এ মানববন্ধন, মিছিল ও স্মারকলিপি দেয়া হয়।
স্মারকলিপিতে ওই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী আল কাভি তশিন, মোঃ রাফসান জানি, কিবরিয়া হোসাইন সিয়াম ও মোঃ জিসান হোসেন এর স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে ১০টি দাবি উল্লেখ করা হয়। দাবিগুলোর মধ্যে ১) দিনাজপুর জেলা শহরে অবস্থিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় উপাসনালয় এর এলাকায় সকল ধরনের ভারী যানবাহন সকাল ৭ টা হতে রাত্রি ১০টা পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করতে হবে। ২) উক্ত এলাকায় চলমান যানবাহন সমূহের গতিশীমা নির্ধারণ এবং বেপরোয়া যান চলাচল বন্ধ করতে হবে। ৩) স্কুল শুরু এবং স্কুল শেষ এই দুই সময়ে রাস্তাগুলোতে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। ৪) স্কুল আছে এমন এলাকাযর রাস্তাগুলোতে বেপরোয়া যান চলাচল বন্ধ করতে হবে। ৫) আমাদের নিহত সহপাঠীর পরিবারকে যথাযথ আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করতে হবে।৬) ছাত্রছাত্রীদের জীবনের নিরাপত্তা বিধানে প্রয়োজনীয় সকল ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।৭) হাসপাতালে জরুরি বিভাগে সার্বক্ষণিক দক্ষ চিকিৎসকের উপস্থিতি ও সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে। ৮)  রাতে সব ধরনের কোচিং সেন্টার প্রাইভেট বন্ধ রাখতে হবে। ৯) ওই ট্র্যাকটি জব্দ করত চালককে গ্রেফতারপূর্বক বিচারের আওতায় আনতে হবে। ১০) স্কুল এন্ড কলেজের সামনে স্কুল শুরুর এবং ছুটির সময় সকল প্রকার ভারী যানবাহন বন্ধ রাখতে হবে।

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর