২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ১৭:২৬

বগুড়ায় ঘর পাচ্ছে আরো ১৪০০ পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বগুড়ায় ঘর পাচ্ছে আরো ১৪০০ পরিবার

বগুড়ায় আরো ১ হাজার ৪১২টি ভূমি ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে মুজিববর্ষের ঘর। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী মার্চ মাসে প্রধানমন্ত্রী ঘরগুলো হস্তান্তর করবেন। 

আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ঘরগুলো হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। একই সঙ্গে জেলার আরো দু’টি উপজেলাকে গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা করা হবে।
 
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, বগুড়ায় ‘ক’ শ্রেণীর ভূমিহীন পরিবারের সংখ্যা ৫ হাজার ৭২ জন। এরমধ্যে মুজিববর্ষে ৪ হাজার ৮০৫টি ঘর ভূমি ও গৃহহীনদের হস্তান্তর করা হয়। প্রথম পর্যায়ে ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে জেলায় ‘ক’ তালিকাভূক্ত ১ হাজার ৪৫২ জনকে একক ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হয়। এরপর দ্বিতীয় পর্যায়ে একই বছরে জুন মাসে বিতরণ করা হয় ৮৫৭টি একক ঘর। তৃতীয় পর্যায়ে ২০২২ সালের ২৬ এপ্রিল বিতরণ করা হয় ৯৩০টি ঘর। এরপর ২১ জুলাই ৩৫৪ টি ঘর ভূমি ও গৃহহীনদের মাঝে বিতরণ করা হয়। 

বগুড়ায় বিভিন্ন সময়ে ঘর হস্তান্তর করার মধ্যে জেলার নন্দীগ্রাম ও দুপচাঁচিয়া উপজেলাকে গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা করা হয়। 

এবার বগুড়ায় বাকি ১ হাজার ৪১২টি ঘরের মধ্যে নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের দিকে ১ হাজার ৩৩২টি ঘরের। আগামী মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহে ঘরগুলোর নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মার্চের মধ্যেই সেই ঘরগুলো প্রধানমন্ত্রী হস্তান্তর করবেন। চাহিদা মোতাবেক ঘরগুলো নির্মাণ হচ্ছে বগুড়ার ১২টি উপজেলায়। চলতি বছর ঘরগুলো হস্তান্তরের পর বগুড়ার আরো দুুটি উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন হিসেবে ঘোষণা করা হবে। উপজেলা দুটি হলো ধুনট ও কাহালু উপজেলা। এ নিয়ে বগুড়ার ১২ টি উপজেলার মধ্যে ৪টি উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত করা হলো। 

উপকারভোগী বগুড়া সদর উপজেলার লাহিড়ীপাড়ার মনোয়ারা বেগম জানান, তার কোন জায়গা জমি ছিল না। অন্যের বাড়িতে কাজ করে ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। সারা মাসে যা আয় করতেন তার অর্ধেক খরচই হতো বাড়ি ভাড়ার পেছনে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়ার ঘর পেয়ে তিনি বেশ খুশি।

বগুড়া সদরের রাজাপুর গ্রামের সানাই বাদক পিরু খা জানান, তার জমি জমা ছিল না। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সানাই বাজিয়ে কোনমতে তার সংসার চলতো। বগুড়া শহরের মফিজ পাগলার মোড়ে ছোট একটি ঘর নিয়ে পরিবারসহ ভাড়া থাকতেন। তার ভাড়া নেওয়া ঘরটিও ছিল অত্যন্ত নাজুক। 

বগুড়া জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর হস্তান্তরের মাধ্যমে এবার জেলার দুটি উপজেলা কাহালু ও ধুনট উপজেলাকে গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা করা হবে। আগামী মার্চ মাসে কাহালুতে আরো ১০টি ঘর ও ধুনটে আরো ২৮টি ঘর হস্তান্তর করা হবে। এই হস্তান্তরের মাধ্যমে এই দুটি উপজেলাকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা করবেন।

 

বিডি প্রতিদিন/নাজমুল

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর