শিরোনাম
১৯ জানুয়ারি, ২০২৪ ০৭:১১

ঘুমিয়ে ছিলেন ঘরে, সকালে পা বাঁধা লাশ মিলল খালে

নোয়াখালী প্রতিনিধি

ঘুমিয়ে ছিলেন ঘরে, সকালে পা বাঁধা লাশ মিলল খালে

প্রতীকী ছবি

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে এক গৃহবধূর পা বাঁধা লাশ খাল থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার চর পানাউল্যাহ গ্রামের মালেক খাল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত গৃহবধূর নাম বিবি হালিমা বেগম (৪৭)। তিনি উপজেলার চরজব্বর ইউনিয়নের চর পানা উল্যাহ গ্রামের জসিম উদ্দিনের স্ত্রী। তিনি পাঁচ ছেলের জননী ছিলেন। তার চোখে ও মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিহত ওই নারী একাই স্বামীর বাড়িতে থাকতেন। গত কয়েক বছর স্বামীর সাথে সম্পর্কের টানাপোড়েন থাকায় তার স্বামী অন্যত্র বসবাস করতেন। সপ্তাহে একবার সন্তানরা মায়ের সাথে দেখা করতেন। গতকাল (বুধবার) তিনি জেলা শহর মাইজদী থেকে সন্ধ্যার দিকে নিজ বাড়িতে আসেন। প্রতিদিনের ন্যায় যথারীতি রাতে নিজের ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে স্থানীয় লোকজন তার দুই পা বাঁধা মরদেহ বাড়ির পাশে খালে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। তার চোখে ও মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোর্তাহীন বিল্লাহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি জানান, নিহত নারীর বাম চোখে ও মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আঘাতের কারণেই মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তদন্ত কার্যক্রম চলছে। হত্যার সম্ভাব্য কারণগুলো নিয়ে কাজ করছি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর