২০ জানুয়ারি, ২০২৪ ১৬:০৩

৩১তম বিসিএস ক্যাডার অ্যাসোসিয়েশনের অনুষ্ঠানে মঞ্চ মাতালেন জেমস

অনলাইন ডেস্ক

৩১তম বিসিএস ক্যাডার অ্যাসোসিয়েশনের অনুষ্ঠানে মঞ্চ মাতালেন জেমস

সংগৃহীত ছবি

৩১তম বিসিএস ক্যাডার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের চাকরিতে প্রবেশের ১১বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে শুক্রবার রাতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মঞ্চ মাতান জেমস। কর্মজীবনের ১২তম বছরে পা দেওয়ার মুহূর্ত আনন্দঘন করে তুলতে বর্ণিল এই আয়োজন করে ৩১তম বিসিএস ক্যাডার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা। যাতে যোগ দেন বিভিন্ন ক্যাডারে কর্মরত অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা।

রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তন মঞ্চে শুক্রবার রাত ৮টার কিছু সময় পর আসেন নগর বাউল জেমস। অনেকটা চোখের পলকে বিরতিহীনভাবে নিজের জনপ্রিয় ১৫টি গান গেয়ে মঞ্চ ছাড়েন এই শিল্পী। কিন্তু এতোগুলো গান শুনেও যেন মন ভরেনি গানের গুরুর ভক্তদের। অবশ্য তাতে খুব মন খারাপ হয়নি কারও। কারণ খুব কাছ থেকে প্রিয় শিল্পীর গান শোনার সুযোগ যে সচারাচর হয় না।

অনুষ্ঠানটি উৎসর্গ করা হয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র শেখ কামালের প্রয়াত স্ত্রী ক্রীড়াবিদ সুলতানা কামাল খুকীকে। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুকীর ভাই গোলাম আহমেদ টিটো।

অ্যাথলেট বোনকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করার পাশাপাশি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট রাতে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সদস্যদের নিহত হওয়ার ঘটনা নিয়েও কথা বলেন গোলাম আহমেদ টিটো।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে সংগঠনের সদস্য ও তাদের সন্তানরা গান, কবিতা ও নৃত্য পরিবেশন করেন। এরপরই মঞ্চে আসেন কণ্ঠশিল্পী জেমস। তুমুল করতালি দিয়ে তাকে স্বাগত জানান মিলনায়তন ভর্তি দর্শকরা। প্রথমেই তিনি গেয়ে শোনান 'কবিতা তুমি স্বপ্নচারিনী হয়ে' গানটি।

এরপর একে একে - দিওয়ানা দিওয়ানা, গুরু ঘর বানাইলা কি দিয়া, সুলতানা বিবিআনা সাহেব বাবুর বৈঠকখানা, রাতের তারা আমায় কি তুই বলতে পারিস,

চাল চালে আপনি ঘার, এ মেরে হামছাফার, 

চোখের দেখায় মনের দেখা হয়, দুষ্টু ছেলের দল, 

দুঃখিনি দুঃখ করোনা, ঝাকানাকা ঝাকানাকা দেহ দোলানা, সুন্দরীতমা আমার তুমি নীলিমার দিকে তাকিয়ে বলতে পারো, পাগলা হাওয়ার তরে ও ভিগি ভিগি গান গেয়ে মঞ্চ ছাড়েন জেমস।

পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি চাকরি জীবনের লম্বা সময়ে বিভিন্ন সময় প্রাকৃতিক দুর্যোগ, মহামারী করোনাকালে নিজেদের অর্থে অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়েছেন সংগঠনের সদস্যরা। সদস্যরা মিলে গৃহহীনকে ঘর নির্মাণ করেও দিয়েছে ৩১তম বিসিএস ক্যাডার অ্যাসোসিয়েশন। এছাড়াও নানা সময় দেশজুড়ে অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা কর্মস্থলে বৃক্ষরোপণ করে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আকতারুন নেছা। সংগঠনের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল হাদী বলেন, ৩১তম বিসিএস ক্যাডার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সামাজিক কর্মকাণ্ডেও নিজেদের সম্পৃক্ত রাখছেন। প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে নিজ নিজ দফতরে নাগরিকদের সেবা দেওয়ার পাশাপাশি প্রত্যকে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করে যেতে চাই।

এর আগে ১১তম বর্ষপূর্তির দিন সোমবার (১৫ জানুয়ারি) সকালে বনানী কবরস্থানে এবং ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন ৩১তম বিসিএস ক্যাডার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর