Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১১ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ মার্চ, ২০১৯ ২২:৫০

হাসপাতালে যাননি খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক

হাসপাতালে যাননি খালেদা জিয়া

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়-বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা নিতে যাননি কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তিনি কোনো বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে চান। গতকাল দুপুরে বিএসএমএমইউর কেবিন ব্লকের সামনে বিএনপির চিকিৎসক সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশÑড্যাব-এর আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার কাছে যে তথ্য আছে, বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। এমনকি হুইল চেয়ারের যে পাদানি থাকে সেখানেও উনি ঠিকমতো পা তুলতে পারেন না। তার (খালেদা জিয়া) যে ইচ্ছাটা এবং কয়েকদিন আগে কারাগারে তাকে দেখতে যে বিশেষজ্ঞ টিম গিয়েছিল অধ্যাপক এ এফ এম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে তারাও স্পষ্টভাবে বলেছেন যে, তাকে গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করতে। কারণ ওই হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে থাকেন এবং ওখানেই তার নিজস্ব বিশেষজ্ঞ ডাক্তার যারা সারাজীবন তাকে চিকিৎসা দিয়েছেন তারা সেখানে আছেন। এই চাওয়াটা বা দাবিটা তার যে খুব বড় দাবি আমি সেটা মনে করি না। তাকে যে বিএসএমএমইউতে আনতে হবে এমন কোনো কথা নাই।’ এর আগে বিএসএমএমইউর পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজকে বিএনপির নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার এখানে আসার কথা ছিল। উনি আজকে আসবেন না। আমরা যে কোনো সময়ে উনাকে এখানে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত।’ খালেদা জিয়া কেন আসবেন না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাকে কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, উনি (খালেদা জিয়া) আসবেন না। আমাদের এখানে উনার জন্য প্রস্তুত ছিলাম, আমাদের মেডিকেল বোর্ডও প্রস্তুত ছিল। কেবিন প্রস্তুত ছিল। উনি এলে আমরা চিকিৎসা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতাম যথাযথভাবে।’ গত ২৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে খালেদা জিয়াকে দেখতে মেডিকেল বোর্ড গিয়েছিল জানিয়ে পরিচালক জানান, কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা দিয়েছেন সেগুলো ফলোআপ পরীক্ষা করতেই উনার বিএসএমএমইউতে আসার জন্য বোর্ড বলেছেন। এ সময়ে অতিরিক্ত পরিচালক নাজমুল করীম মানিক উপস্থিত ছিলেন। অধ্যাপক ফরহাদ হালিম ডোনার বলেন, ‘এদেশে অনেকেই আছেন যারা প্যারলে দেশের বাইরেও গেছেন, এখনো অনেকে দেশের বাইরে যাচ্ছেন। এই হাসপাতাল থেকে কেউ কেউ দেশের বাইরে যাচ্ছেন। উনি (খালেদা জিয়া) বিএসএমএমইউতে আসার পক্ষে কোনো সময় ছিলেন না। এর আগে দুবার এই হাসপাতালে তাকে আনা হয়েছে। উনি এখানে ছিলেন। আবার জোর করে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে যেখানে ডাক্তাররা সরাসরি মতামতও দেন নাই বিএসএমএমইউ থেকে কারাগারে নিয়ে যেতে।’ চিকিৎসক হিসেবে আপনি খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউ না ইউনাইটেড হাসপাতাল কোনটাকে ভালো বলবেন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘প্রত্যেকটা মানুষের একজন বা একাধিক ডাক্তার থাকে, যার অধীনে তার চিকিসা হয়। যে ডাক্তারের ওপর বিশ্বাস থাকে, আস্থা থাকে। আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ওই বিশ্বাসটা আছে ইউনাইটেড হাসপাতালে যারা বিশেষজ্ঞ আছেন তাদের দ্বারা উনি চিকিৎসা করাতে চান। অতত্রব, ওখানে চিকিৎসা করা হলে উনি মানসিকভাবে বেটার ফিল করবেন, শারীরিকভাবেও বেটার ফিল করবেন।’ অভিযোগ করে অধ্যাপক ডোনার বলেন, ‘বেগম জিয়া দুবার এই হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) এসেছিলেন কিন্তু উনি সঠিক চিকিৎসা পান নাই। বিধায় উনি বলতেছেন যে, আমাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে বিশেষায়িত হাসপাতাল নেওয়া হোক। উনাকে কারাগারে দেখতে যে মেডিকেল টিম গিয়েছিল সেই টিমও বাইরে এসে এ কথা বলেছিল যে, উনাকে (খালেদা জিয়া) ইউনাইটেড হাসপাতালে তার যে সব বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক আছেন তাদের আন্ডারে চিকিৎসা করানোর জন্য, ওই টিমই প্রপোজ করেছিল।’ বিএসএমএমইউর ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম সেলিম ও হলি ফ্যামেলী মেডিকেল হসপিটালের ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক হারুনুর রশীদ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। এর আগে বেলা পৌনে ১২টায় ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম বলেন, ‘উনি না করে দিয়েছেন, উনি যাবেন না।’ বিএনপি চেয়ারপারসন তাহলে কেন হাসপাতালে যেতে চাচ্ছেন না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘উনি অপারগতা প্রকাশ করেছেন। এক্ষেত্রে আমাদের তো করার কিছু নেই।’ তবে কারাগারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিএনপি চেয়ারপারসনের পছন্দ নয়। উনি চান, উনাকে বিশেষায়িত কোনো হাসপাতালে নেওয়া হোক।’


আপনার মন্তব্য