শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৫ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ মার্চ, ২০২১ ২৩:৩৩

অন্ধকারকে পরাস্ত করে আলোকিত জীবন উদ্বুদ্ধ করছে : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

অন্ধকারকে পরাস্ত করে আলোকিত জীবন উদ্বুদ্ধ করছে : তথ্যমন্ত্রী
Google News

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, অন্ধকারকে পরাস্ত করে আলোকিত জীবন নির্মাণেও উদ্বুদ্ধ করছে বাংলাদেশ প্রতিদিন। এ জন্যই

জনমানসে তার উজ্জ্বল অবস্থান। দেশের জনপ্রিয় ও সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের দ্বাদশ বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে এক বাণীতে তিনি একথা বলেন।  

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বাণীর শুরুতেই বলেন, বাংলাদেশ প্রতিদিনের একাদশ বর্ষ পেরিয়ে দ্বাদশ বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আমি পত্রিকাটির প্রকাশক, সম্পাদক ও পাঠকসহ এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি স্বাধীন বাংলাদেশ। এ দেশকে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ অদম্য গতিতে এগিয়ে চলেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিশ্বাস করে, জাতির উন্নয়নে গণমাধ্যমের উন্নয়ন ও স্বাধীনতা অত্যন্ত জরুরি। সে কারণেই গত এক যুগে বাংলাদেশে গণমাধ্যমের অভূতপূর্ব বিকাশ সাধিত হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, সংবাদপত্র সমাজের দর্পণ। একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থায় গণমাধ্যম হিসেবে সংবাদপত্রের ভূমিকা অত্যন্ত ব্যাপক ও গুরুত্বপূর্ণ। মুক্তবুদ্ধি চর্চার মাধ্যমে সংবাদপত্র একটি অগ্রসরমান জাতি গঠনে নিয়ামক শক্তি হিসেবে কাজ করতে পারে। জঙ্গিবাদ, অপসংস্কৃতি, মূল্যবোধের অবক্ষয়, ধর্মান্ধতা, মাদক, দুর্নীতি ও সন্ত্রাস রোধে গণমাধ্যম, বিশেষ করে সংবাদপত্র বলিষ্ঠ পদক্ষেপ নিয়ে একটি নিষ্কলুষ সমাজ গঠনে অগ্রপথিকের ভূমিকা পালন করতে পারে বলে আমার বিশ্বাস। তিনি বলেন, লাখো শহীদের রক্ত আর প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত আমাদের মহান স্বাধীনতা বারবার তা স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে; সমাজের বুকে সংঘটিত ইতিবাচক দিকগুলো উপস্থাপন দ্বারা দেশ গঠনে নতুন প্রজন্মকে দিচ্ছে উৎসাহ।

‘দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন’ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে বস্তুনিষ্ঠ এবং গঠনমূলক সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে গণতন্ত্র ও উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে তাদের অবদান অব্যাহত রাখবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস। পত্রিকাটি পেশাদারিত্ব বজায় রেখে দেশ ও দশের কথা বলে মাটি ও মানুষের আরও কাছে পৌঁছাতে সক্ষম হবে এ প্রত্যাশা আমাদের সবার।

তথ্যমন্ত্রী তাঁর বাণীতে আগামী দিনগুলোয় বাংলাদেশ প্রতিদিনের সাফল্য কামনা করেন।