শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৬ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ জুন, ২০২১ ২৩:২৩

ডিবি কার্যালয়ে পরীমণি নাসির অমি রিমান্ডে

পরীক্ষা হচ্ছে সিসিটিভির ফুটেজ, সে রাতে কী হয়েছিল বনানী থানায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

ডিবি কার্যালয়ে পরীমণি নাসির অমি রিমান্ডে
Google News

চিত্রনায়িকা পরীমণিকে নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেফতার ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিকে রাজধানীর বিমানবন্দর থানার মাদক আইনের মামলায় সাত দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার অনুমতি দিয়েছে আদালত। এ ছাড়া এ মামলার তিন নারী আসামি লিপি আক্তার, সুমি আক্তার ও নাজমা আমিন স্নিগ্ধাকে তিন দিন করে রিমান্ডে পাঠানো হয়েছে। গতকাল ঢাকা মহানগর হাকিম নিভানা খায়ের জেসি রিমান্ডের এ আদেশ দেন। এ ছাড়া, আদালত পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে সাভার থানায় দায়ের করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ৮ জুলাইয়ের মধ্যে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। অন্যদিকে, গতকাল ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের কার্যালয়ে গিয়ে পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন পরীমণি। বলেছেন, পুলিশ ম্যাজিকের মতো কাজ করেছে। আমি ডিবিতে নিজেই এসেছি। আমাকে তারা সাহস জুগিয়েছেন। আমি আবার কাজে ফিরব। পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তারা বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজও সংগ্রহ করছেন। তারা শুরু থেকে পরীমণির বক্তব্যগুলো গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছেন। পরীমণির সেই রাতে বনানী থানায় যাওয়া নিয়ে পুলিশ বিস্তারিত বলেছে মিডিয়ার কাছে।

আমাদের আদালত প্রতিবেদক জানান, পুলিশ আসামি নাসির ও অমিকে ১০ দিন এবং তিন নারী আসামিকে পাঁচ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করে। আদালত উভয়পক্ষের বক্তব্য শুনে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা মেনে আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করার আদেশ দেয়। নারী আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নারী পুলিশের উপস্থিতিরও নির্দেশ দেয়। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান জোনাল টিমের পুলিশ পরিদর্শক উদয় কুমার ম ল আসামিদের আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের পিপি আবদুল্লাহ আবু বলেন, ‘মামলাটি মাদকদ্রব্য আইনের। ঘটনার সূত্রপাত চিত্রনায়িকা পরীমণিকে নির্যাতনের কারণে। ওই ঘটনায় পরীমণি ঢাকার সাভার থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায় ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাজধানীর উত্তরার একটি বাসা থেকে নাসির উদ্দিনসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করে। এ ধরনের ভদ্র মুখোশধারী লোকজন সমাজকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। বিভিন্ন লোকজনকে প্রলোভন, অভিনয় করে নিকৃষ্ট কাজে সম্পৃক্ত করছে। আরও কারা জড়িত, কারা মাদক সরবরাহ করে তাদের চিহ্নিত করতে এ আসামিদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন।

এদিকে আসামি নাসির উদ্দিনের পক্ষে ঢাকা বারের সভাপতি আবদুল বাতেন, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মোহাম্মদ হযরত আলী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। জামিন শুনানিতে তারা বলেন, ‘ঘটনা ৮ জুনের। মামলা হয়েছে ছয় দিন পর। সেই মামলা থেকে এ মামলা এসেছে। দেখা যাচ্ছে মাদক উদ্ধারের কথা বলা হয়েছে মামলায়। কিন্তু নাসির উদ্দিন ওই বাসায় ছিলেন না। তাকে অন্য জায়গা থেকে গ্রেফতার করে এ বাসায় নিয়ে এসেছে। ওই বাসা কার তা তার দেখার বিষয় নয়। পরীমণির ওই ঘটনা না ঘটলে খালি বোতল, সোডার বোতল উদ্ধারের ঘটনায় মামলা হতো না। নাসির উদ্দিনকে যে মামলায় গ্রেফতার করতে গেছেন, সেই মামলায় তো তাকে গ্রেফতার গ্রেফতার দেখাননি। ওই বাসা আসামির না। তার শরীর থেকেও কিছু পায়নি। বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। আসলে বিষয় কিছু না। কিছুই পায়নি। আসামি নাসির উদ্দিন একজন সম্মানিত ব্যক্তি, ব্যবসায়ী। প্রেক্ষাপটের আলোকে এখানে আসতে হয়েছে। লাখ লাখ টাকা তিনি সরকারকে ট্যাক্স দেন। আর উনি গেছেন এসব মাদক খাটের নিচে রাখতে। তিনি ভিকটিমাইজ। সমাজের এলিট পারসন। যেভাবে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে, এতে তার মান-সম্মান ক্ষুণ্ণ হয়েছে। তিনি অসুস্থও। যা উদ্ধার করার তা হয়েছে। রিমান্ডের যৌক্তিকতা নেই। প্রয়োজনে তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করা হোক।

তদন্ত সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব পরিকল্পনা অনুসারেই চিত্রনায়িকা পরীমণিকে ঢাকা বোট ক্লাবে নিয়ে গিয়েছিলেন গ্রেফতার তুহিন সিদ্দিকী অমি। বোট ক্লাবে যাওয়ার আগ পর্যন্ত সকাল ১১টা থেকে বনানীর পরীমণির বাসাতেই অবস্থান করেন অমি। কস্টিউম ডিজাইনার জাহিদ আহমেদ জিমি ছাড়াও ছিলেন একজন নারী নির্মাতা। এই জিমির মাধ্যমেই অমির সঙ্গে পরিচয় হয় পরীমণির। গত দুই বছর ধরে তারা ঘনিষ্ঠ হন। বিভিন্ন সময়ই তারা রাত-বিরাতে ঘুরতে বের হতেন।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ বলেন, আমরা পরীমণির কাছে ঘটনা নিয়ে কথা বলেছি। আমরা তাকে আশ্বস্ত করেছি তার যে অভিযোগ তা যথাযথভাবে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাকে নির্ভয় দিয়েছি। যেই জড়িত থাকুক না কেন তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

এদিকে, গতকাল বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে পরীমণি ডিবি কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। তিন ঘণ্টা পর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ডিবি কার্যালয় থেকে বেরিয়ে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, আমার সঙ্গে যা হয়েছে, আমি আশাবাদী, আমি এর ন্যায় বিচার পাব। পুলিশ ম্যাজিকের মতো কাজ করেছে। আসামিদের গ্রেফতার করেছে। আমি শিল্পী সমিতি, পরিচালক-প্রযোজক সমিতির নেতাদের সহযোগিতা চেয়েছিলাম। তারা আমাকে সহযোগিতা করেনি।

এদিকে ঘটনার বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজ নিয়ে পুলিশ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছে। বোট ক্লাবে সেই রাতে পরীমণি কেন গেলেন তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যাওয়ার পর কীভাবে ভিতরে প্রবেশ করলেন, কার কাছে গেলেন, কী আলাপ হয়েছিল, তিনি সেখানে কোনো ফুড ও ড্রিংকসের অর্ডার করেছিলেন কিনা তারও তদন্ত হচ্ছে। ঘটনার পর ভোররাতে পরীমণি বনানী থানায় যান মামলা করতে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা তখন পরীমণিকে অপ্রকৃতিস্থ অবস্থায় পান বলে মিডিয়ায় বলেছেন বনানী থানার ওসি ও গুলশানের ডিসি। তারা ভোররাতে পরীমণিকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে পাঠান স্বাভাবিক হতে। এ ব্যাপারে গুলশান বিভাগের উপকমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, গত ৮ তারিখ দিবাগত মধ্যরাত অর্থাৎ সাড়ে ৩টার দিকে পরীমণি অপ্রকৃতিতস্থভাবে বনানী থানায় যান। তার অভিযোগ ছিল, ঢাকা বোট ক্লাবে কেউ তাকে কিছু মিশিয়ে খাইয়ে দিয়েছে। তখন তাকে বলা হয় ম্যাডাম, আগে হাসপাতালে গিয়ে আপনি মিনিমাম ট্রিটমেন্ট নেন। এরপর স্বাভাবিক হয়ে থানায় আসুন। লিখিত অভিযোগ করুন। আমরা ব্যবস্থা নেব। তখন বনানী থানার একজন এসআই তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে নিয়ে যান।

তিনি আরও বলেন, পরীমণি এরপর থেকে টানা চার দিনেও ওসিকে কোনো কল দেননি। তিনি তো আমাকেও চেনেন। অথচ চার দিন পর ফেসবুকের স্ট্যাটাসের মাধ্যমে আমরা ঘটনাটি জানলাম।

৮ জুলাইয়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন : অভিনেত্রী পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে সাভার থানায় নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় আগামী ৮ জুলাই তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল মামলার এজাহার আদালতে আসে। দুপুরে ঢাকার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুন্নাহারের আদালত তা গ্রহণ করে। সাভার থানা পুলিশকে মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয় আদালত।

এই বিভাগের আরও খবর