শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৬ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ জুন, ২০২১ ২৩:৫৩

মেরিন ড্রাইভ খুলে দেবে সম্ভাবনার নতুন দিগন্ত

বদলে যাবে চট্টগ্রাম-কক্সবাজারের উন্নয়নচিত্র

মুহাম্মদ সেলিম, চট্টগ্রাম

মেরিন ড্রাইভ খুলে দেবে সম্ভাবনার নতুন দিগন্ত
Google News

চট্টগ্রাম তথা দেশের অর্থনৈতিক সম্ভাবনার নতুন দিগন্ত খুলে দেবে পৃথিবীর দীর্ঘতম মেরিন ড্রাইভ সড়ক। চট্টগ্রামের মিরসরাই থেকে শুরু হয়ে মেরিন ড্রাইভ সড়কটি হবে কক্সবাজারের টেকনাফ পর্যন্ত। ২৫০ কিলোমিটার দীর্ঘ মেরিন ড্রাইভটি যুক্ত হবে এশিয়ান হাইওয়ে সঙ্গে। পুরোদমে চালু হলে প্রকল্প ঘিরে হবে হাজার হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য। এতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজারের অর্থনৈতিক সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচনের পাশাপাশি যুগান্তকারী পরিবর্তন আসবে সড়ক যোগাযোগব্যবস্থায়ও। এরই মধ্যে বিশ্বের দীর্ঘতম এ মেরিন ড্রাইভের সম্ভাব্যতা যাছাই ও নকশা তৈরির কাজ শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়ান পরামর্শক প্রতিষ্ঠান এসএনইটি ইন্টারন্যাশনাল।

সাবেক মেয়র ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, ‘চট্টগ্রামকে সত্যিকারের বাণিজ্যিক রাজধানী করার পরিকল্পনা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। তাই চট্টগ্রামকে ঘিরে বড় বড় প্রকল্প হাতে নিয়েছেন তিনি। এ মেরিন ড্রাইভের মাধ্যমে অর্থনৈতিক ও যোগাযোগব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন হবে।’

জানা যায়, পর্যটননগর কক্সবাজারের সঙ্গে দেশের সড়কব্যবস্থার আরও উন্নয়ন, উপকূলীয় এলাকায় গড়ে ওঠা শিল্পকারখানার পণ্য পরিবহন সহজতর এবং এশিয়ান হাইওয়ের সঙ্গে বাংলাদেশকে যুক্ত করার জন্য মেরিন ড্রাইভ করার উদ্যোগ নেয় সরকার। এরই মধ্যে কক্সবাজার থেকে টেকনাফ পর্যন্ত ৮০ কিলোমিটার মেরিন ড্রাইভ নির্মিত হয়েছে। কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের মিরসরাই পর্যন্ত ১৭০ কিলোমিটার নতুন করে সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে সম্ভাব্যতা যাচাই ও নকশা তৈরির কাজও শুরু হয়েছে। এ বছরের শেষ নাগাদ চূড়ান্ত প্রতিবেদন ও নকশা হাতে পাবে সরকার। নির্মাণ হলে এ মেরিন ড্রাইভ ঘিরে চলবে হাজার হাজার কোটি টাকার কর্মযজ্ঞ। মিরসরাই থেকে টেকনাফ পর্যন্ত পর্যটকদের জন্য গড়ে উঠবে ছোটবড় অসংখ্য রিসোর্ট, হোটেল, রেস্টুরেন্ট। হবে ছোট ছোট বিচ। বিশেষ করে উপকৃত হবে সামুদ্রিক অর্থনীতি। মেরিন ড্রাইভের কল্যাণে সমুদ্র থেকে আহরিত সম্পদ দ্রুত সময়ের মধ্যে দেশের যে কোনো এলাকায় পৌঁছানো যাবে দ্রুত সময়ের মধ্যে। এ মেরিন ড্রাইভ সড়ক চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের দূরত্ব কমাবে প্রায় ৫০ কিলোমিটার। চট্টগ্রাম-কক্সবাজারকে এক সুতায় গাঁথতে কর্ণফুলীর তলদেশে বর্তমানে নির্মাণ হচ্ছে দেশের প্রথম টানেল। এরই মধ্যে এর নির্মাণকাজের অগ্রগতি হয়েছে প্রায় ৭০ শতাংশ। মেরিন ড্রাইভের সঙ্গে যুক্ত হবে মিসরাইয়ে নির্মাণাধীন দেশের বৃহৎ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল বঙ্গবন্ধু শিল্পনগর, আনোয়ারার বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল, চট্টগ্রাম বন্দর, বে-টার্মিনাল, সীতাকুন্ড উপকূলে প্রস্তাবিত মিনি বন্দর। মহেশখালীতে ৩ লাখ কোটি টাকার বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পগুলোকেও বিশেষ সুবিধা দেবে এ মেরিন ড্রাইভ। সব মিলিয়ে মেরিন ড্রাইভ প্রকল্প ঘিরে বদলে যাবে চট্টগ্রাম-কক্সবাজারের অর্থনৈতিক উন্নয়নের চিত্র।

এই বিভাগের আরও খবর