শিরোনাম
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

বাউল শিল্পীকে মাথা ন্যাড়া করে মারধর গ্রেফতার ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বাউল শিল্পীকে মাথা ন্যাড়া করে মারধর গ্রেফতার ৩

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার জুড়ি মাঝপাড়া গ্রামে বাউল শিল্পী মেহেদী হাসানকে (১৬) ঘুম থেকে ডেকে তুলে মারধর ও মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেওয়ার ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। গতকাল গ্রেফতার তিনজনকে আদালতে প্রেরণ করা হয়। তারা হলেন-

উপজেলার গুজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও জুড়ি মাঝপাড়ার বাসিন্দা মেজবাউল ইসলাম (৫২), একই গ্রামের শফিউল ইসলাম খোকন (৫৫) ও তারেক রহমান (২০)। মঙ্গলবার রাতে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ উপজেলার জুড়ি মাঝপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে।

শিবগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, মেহেদী হাসান গুজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করে আর্থিক অনাটনের কারণে পড়াশোনা করতে পারেনি। এরপর পার্শ্ববর্তী ধাওয়াগীর গ্রামের মতিন বাউলের সঙ্গে পরিচয় হলে সে তার সঙ্গে চলাফেরা শুরু করে। মেহেদী হাসান কয়েক বছর ধরে মতিন বাউলের সঙ্গে গান গেয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিল। বাউল শিল্পী হওয়ার কারণে মেহেদী হাসান সাদা লুঙ্গি, সাদা ফতুয়া এবং সাদা গামছা ব্যবহার করত। পাশাপাশি মাথায় বাবরি (লম্বা) চুল রাখত। গ্রেফতার ব্যক্তিরা মেহেদী হাসানের পোশাক এবং মাথার চুল নিয়ে বিভিন্ন সময় অশালীন মন্তব্য ও কটাক্ষ করত। এসবের প্রতিবাদ করায় গ্রেফতার তিনজনসহ পাড়ার আরও কয়েকজন ১৮ সেপ্টেম্বর রাত ১০টার দিকে মেহেদীর বাড়িতে যায়। তারা মেহেদীকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে জোর করে তার মাথা ন্যাড়া করে দেয়। বাধা দিতে গেলে তাকে মারধর করা হয়। মাতব্বররা তাকে বাউল গান ছেড়ে দিতে বলে এবং চুল আবার বড় করলে গ্রামছাড়া করার হুমকি দেয়। ঘটনার পর থেকে লজ্জা ও ভয়ে বাড়ির বাইরে যায়নি মেহেদী। শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি অত্যন্ত অমানবিক। মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার সংবাদ পেয়েই বাউল শিল্পীকে থানা হেফাজতে নেওয়া হয়। তার মুখে বিস্তারিত শুনে অভিযান চালিয়ে রাতেই তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আরও দুজন পলাতক রয়েছে। শিল্পীর নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। মঙ্গলবার রাতে মোবাইল ফোনে বাউল শিল্পীর মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন। গ্রেফতারকৃত তিন জনসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মেহেদী হাসান বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করেন। বগুড়া বাউল গোষ্ঠীর সভাপতি আবু সাঈদ সিদ্দিকী জানান, মেহেদীর ঘরে খাবার নেই বলেই সে বাউল সংগীত পরিবেশন করে উপার্জন করত। তার চুল কেটে দেওয়ায় বাউল শিল্পীরা অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের কঠিন শাস্তি দাবির পাশাপাশি সব বাউল ও সাংস্কৃতিক কর্মীর নিরাপত্তা প্রদানে সহযোগিতা করার কথা বলেন তিনি।

সর্বশেষ খবর