রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ টা

ব্রিটিশ রাজার অভিষেক

প্রতিদিন ডেস্ক

ব্রিটিশ রাজার অভিষেক

সদ্যপ্রয়াত রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের পুত্র প্রিন্স তৃতীয় চার্লস ব্রিটেনের রাজা হিসেবে শপথ নিয়েছেন। যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের সেন্ট জেমস প্রাসাদে রাজকীয় অনুষ্ঠানে সমবেত গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সম্বোধন করে রাজা চার্লস তাঁর মা এলিজাবেথ এবং স্ত্রী রানি ক্যামিলার প্রতি শ্রদ্ধা জানান। গতকাল এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি। চার্লসকে রাজা হিসেবে নামকরণ করার আগে অ্যাকসেশন কাউন্সিল আনুষ্ঠানিকভাবে রানির মৃত্যু ঘোষণা করে। এই অ্যাকসেশন কাউন্সিল ব্রিটিশ রাজপরিবারের সদস্য, দেশটির প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য জ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদ এবং ক্যান্টারবুরির আর্চবিশপকে নিয়ে গঠিত। সেন্ট জেমস প্রাসাদ ঘোষিত সার্বভৌম রাজার সরকারি বাসভবন। তৃতীয় চার্লসকে রাজা ঘোষণার আগে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সের নেতা পেনি মর্ডান্ট রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যু ঘোষণা করেন। বিবিসি জানিয়েছে, তৃতীয় চার্লসকে রাজা ঘোষণার পর ঘোষণায় স্বাক্ষর করা শুরু হয়। প্রথমে প্রিন্স উইলিয়াম ঘোষণায় স্বাক্ষর করেন। উইলিয়ামকে অনুসরণ করেন ক্যামিলা, রানি কনসোর্ট। এ সময় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাস এবং আর্চ বিশপ জাস্টিন ওয়েলবি তা প্রত্যক্ষ করেন। সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, গর্ডন ব্রাউন, ডেভিড ক্যামেরন এবং টেরিজা মেকে স্বাক্ষর করার জন্য অপেক্ষমাণদের লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। প্রথমে মৃত রানির জন্য পতাকাগুলো অর্ধনমিত অবস্থায় থাকলেও নতুন রাজার সম্মানে সেগুলো পুরোপুরি উত্তোলন করা হয়। এরপর আজ রবিবার পর্যন্ত যুক্তরাজ্যজুড়ে তৃতীয় চার্লসের রাজা হওয়ার ঘোষণা প্রচার করা হবে, তারপর পতাকাগুলো ফের অর্ধনমিত করা হবে।

লর্ড প্রেসিডেন্ট পেনি মর্ডান্ট, যিনি অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, ঘোষণার পরবর্তী পদক্ষেপগুলো তালিকাভুক্ত করেছেন, যার মধ্যে রয়েছে লন্ডন, এডেনবার্গ, কার্ডিফ এবং বেলফাস্টে ঘোষণা পাঠ করার আদেশ দেওয়া এবং হাইড পার্ক এবং লন্ডনের টাওয়ারে বন্দুকের স্যালুট শুরু করা। যুক্তরাজ্যের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি দিন সিংহাসনে অধিষ্ঠিত থাকার পর বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় বিকালে ৯৬ বছর বয়সে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ মৃত্যুবরণ করেন।

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর