Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ এপ্রিল, ২০১৯ ১৪:১৪

ভারতে 'অন্তর্বাস খাকি' নিয়ে তোলপাড়

অনলাইন ডেস্ক

ভারতে 'অন্তর্বাস খাকি' নিয়ে তোলপাড়

লোকসভা নির্বাচনে প্রচারে নেমেই একটি সভায় গিয়ে কারও নাম উচ্চারণ না করেই সমাজবাদী পার্টি নেতা আজম খান  'তার পরনের অন্তর্বাসের রংও খাকি' বলে মন্তব্য করেছিলেন। 

ভারতে এর থেকেই শুরু হয় বিতর্ক। মামলা দায়ের করাও হয় আজম খানের বিরুদ্ধে। 

বিরোধী প্রার্থী বিজেপি দলের নেত্রী জয়া প্রদা সম্পর্কে যে তিনি এই মন্তব্যে করেছেন তা সবাই বুঝতে পারছে। এর আগে তিনি জয়াপ্রদাকে নাচনেওয়ালি বলে বিতর্কে জড়ান। 

জয়া সমাজবাদী পার্টি ছেড়ে বিজেিপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকে আজম খান তার বিরুদ্ধে একের পর এক মন্তব্য করে চলেছেন। 

এবার এ বিষয়ে মুখ খুললেন জয়া প্রদা। সোমবার জয়া প্রদা বললেন, গণতন্ত্র এবং নারীদের সম্মান রক্ষার খাতিরে এই মনোভাবের মানুষকে ভোটে লড়ার অধিকার দেওয়া উচিত নয়। বিজেপি এ প্রার্থী পালটা জবাবে তার প্রতিদ্বন্দ্বীর উদ্দেশে বলেন, ‘আমি মরে গেলে কি আপনি শান্তি পাবেন! আপনি কী ভাবছেন? আমি ভয় পেয়ে রামপুর ছেড়ে চলে যাব? ভুল ভাবছেন।’ 

এদিকে এই ঘটনায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ মুখ খুলেছেন, জয় প্রদার নামে চূড়ান্ত আপত্তিজনক মন্তব্য করায় সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খানকে তিরস্কার করেন সুষমা। 

তিনি সপা প্রধান মুলায়ম সিং যাদবের উদ্দেশে টুইট করে এই ঘটনার সঙ্গে মহাভারতের বস্ত্রহরণ পর্বের তুলনা টানেন। 

এদিকে আজম খানের জবাব ছিল, আমি কারও নাম নিইনি। আমি জানি কি বলতে হবে। যদি কেউ প্রমাণ করতে পারে কারও নাম নিয়েছি তাহলে আমি নির্বাচনে লড়ব না।

একটা সময়ে আজম খানের হাত ধরেই রামপুরে এসেছিলেন তত্‍কালীন সমাজবাদী পার্টি প্রার্থী জয়া প্রদা। পরে অবশ্য দু’জনের মধ্যে তিক্ততা এতটাই বেড়ে যায়, খানের বিরুদ্ধে অ্যাসিড হামলার অভিযোগও করেন জয়া প্রদা।

অখিলেশ যাদবের উপস্থিতিতেই একটি নির্বাচনী জনসভায় জয়া প্রদা সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করেন আজম খান। 


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন 


আপনার মন্তব্য