শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ আগস্ট, ২০২১ ১২:৫৬
প্রিন্ট করুন printer

বিদেশি সেনাদের এ অঞ্চলে কোনো ঠাই নেই: আইআরজিসি

অনলাইন ডেস্ক

বিদেশি সেনাদের এ অঞ্চলে কোনো ঠাই নেই: আইআরজিসি
পারস্য উপসাগরে মার্কিন বিমানবাহীর যুদ্ধজাহাজে কীভাবে ইরান ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাতে পারে তার একটি কল্পিত চিত্র (ফ্রান্টলাইন ম্যাগাজিনে প্রকাশিত ছবি)
Google News

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র নৌ শাখার কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল আলী রেজা তাংসিরি বলেছেন, পারস্য উপসাগর ও হরমুজ প্রণালী সম্পূর্ণভাবে নিরাপদ রয়েছে এবং কৌশলগত এই অঞ্চলে বিদেশি বাহিনীকে কোনওভাবেই স্বাগত জানানো হবে না।

তিনি বলেন, “পারস্য উপসাগর এবং হরমুজ প্রণালীর সমস্ত পানিসীমা একদম নিরাপদ এবং এই নিরাপত্তা ও ইরানের স্বার্থ ধরে রাখার জন্য আমরা সবসময় প্রস্তুত।”

তিনি জানান, কৌশলগত হরমুজ প্রণালী দিয়ে প্রতিটি জাহাজের প্রবেশ এবং বেরিয়ে যাওয়ার বিষয়টি ইরান সবসময় পর্যবেক্ষণে রেখেছে। শত্রুরাও জানে তাদের প্রতিটি পদক্ষেপ পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে এবং ইরানের পানিসীমার সামান্যতম লংঘন ঘটলে তারা কঠোর জবাব পাবে।

কমান্ডার আলী রেজা আরো বলেন, “পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের মুসলিম দেশগুলো এ অঞ্চলের নিরাপত্তা রক্ষার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত এবং এই নিরাপত্তা রক্ষার জন্য বিদেশি কোনও সামরিক বাহিনীর প্রয়োজন নেই। পারস্য উপসাগর হচ্ছে আমাদের মাতৃভূমি, বাইরের শক্তির জায়গা নয়।”

তিনি জোর দিয়ে বলেন, “পারস্য উপসাগরে ইরানের সার্বভৌমত্ব ধরে রাখার জন্য আমরা শক্তভাবে দাঁড়িয়েছি এবং শেষ নিশ্বাস পর্যন্ত আমরা সেভাবেই থাকব।”

সম্প্রতি ইসরায়েলের একটি তেল ট্যাংকারে হামলার ঘটনায় যখন ওমান সাগর এবং পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলে প্রচণ্ড উত্তেজনা বিরাজ করছে তখন আইআরজিসি’র এ কমান্ডার এসব কথা বললেন। জাহাজে হামলার ঘটনায় ইসরায়েল, ব্রিটেনের এবং আমেরিকা ইরানকে দায়ী করছে। ইরানের ওপর হামলার জন্য ইসরায়েলকে পাশ্চাত্যের ওই দুই দেশ সবুজ সংকেত দিয়েছে বলেও খবর বেরিয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর