২৩ আগস্ট, ২০২১ ১৩:২৪

পাঞ্জশিরে মুখোমুখি তালেবান-মাসুদ বাহিনী

অনলাইন ডেস্ক

পাঞ্জশিরে মুখোমুখি তালেবান-মাসুদ বাহিনী

আফগানিস্তানের অধিকাংশ এলাকা দখল করে নিতে পারলেও হিন্দুকুশ পাহাড়ের পাদদেশে পঞ্জশির উপত্যকা এখনো তালেবানের অধীনে আসেনি। আসাদ মাসুদ ও আশরাফ গনির আমলে ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লা সালেহ ও তাদের বাহিনী পঞ্জশির দখল করে আছে। তারা আরও কয়েকটি এলাকা দখল করেছে। তালেবানের বিরুদ্ধে তারা প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে। তাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে কিছু উপজাতি জনগোষ্ঠীর নেতারাও।

কিন্তু এবার তালেবান পঞ্জশির দখল করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। তারা নির্দিষ্ট সময়সীমা দিয়ে বলেছে, মাসুদ ও সালেহদের আত্মসমর্পন করতে হবে। না হলে তারা ওই প্রতিরোধ গুঁড়িয়ে দেবে। শয়ে শয়ে তালেবানকে পঞ্জশির পাঠানো হয়েছে।

তালেবান এখনো পর্যন্ত আফগান সেনার যাবতীয় প্রতিরোধ খুব সহজেই অতিক্রম করে কাবুল দখল করে নিয়েছে। শুধু তাই নয়, গত ২০ বছরে আমেরিকা আফগান সেনার হাতে প্রচুর অস্ত্র তুলে দিয়েছিল। যার মধ্যে ছিল ছয় লাখ রাইফেল-বন্দুক, ৮০ হাজার মাইন নিরোধক গাড়ি, যে কোনো রাস্তায় চলতে পারে এমন প্রায় পাঁচ হাজার হামভি, প্রচুর গ্রেনেড, নাইট ভিশন গগলস ও ম্যানপ্যাক। সেই অস্ত্রের অনেকটাই এখন তালেবানের দখলে। ফলে তারা আরো অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে।

তবে মাসুদ ও সালেহ বাহিনী দাবি করেছে, তাদের কাছেও প্রচুর অস্ত্র আছে। সেই সঙ্গে তারা কৌশলগতভাবে অনেক ভালো জায়গায় আছে। মাসুদ জানিয়েছেন, অনেক এলাকা থেকে আফগান সেনা এসে তাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে। তাতে তাদের শক্তি বেড়েছে। তাছাড়া তালেবান দখল নেয়ার পর কাবুল সহ অনেক এলাকার মানুষ পঞ্জশিরে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। তাদের মধ্যে অনেককে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। সবমিলিয়ে তারাও প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন মাসুদ। সূত্র: ডয়চে ভেলে

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত

এই বিভাগের আরও খবর