২ অক্টোবর, ২০২২ ০৮:৫৬

দুই বছর ধরে শিশুকে ধর্ষণ, দোষীকে ১৪২ বছরের কারাদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক

দুই বছর ধরে শিশুকে ধর্ষণ, দোষীকে ১৪২ বছরের কারাদণ্ড

প্রতীকী ছবি

দুই বছর ধরে শিশুকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগ ছিল। সেই অভিযোগ আদালতে প্রমাণিত হলো। এজন্য ৪১ বছর বয়সী ব্যক্তিকে ১৪২ বছরের কারাদণ্ড দিল ভারতের কেরালার পাথানামথিত্তার একটি স্থানীয় আদালত।

পাশাপাশি তাকে ৫ লাখ রুপি জরিমানাও করা হয়েছে। জরিমানা না দিলে কারাদণ্ডের মেয়াদ আরও তিনবছর বাড়বে বলে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। পাথানামথিত্তা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা আদালতের (প্রধান পকসো) বিচারক জয়কুমার জন এই রায় দেন।

বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের বরাতে এ খবর প্রকাশ করেছে হিন্দুস্তান টাইমস।

খবরে বলা হয়েছে, ২০১৯ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে কেরালের পাথানামথিত্তায় এই ঘটনা ঘটে। এর জেরেই কেরালের পকসো আদালতে এই সংক্রান্ত মামলার শুনানি হয়।  

পুলিশের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘যৌন অপরাধ থেকে শিশুদের সুরক্ষা (পকসো) আইনের মামলায় কোনো অভিযুক্তকে এই জেলায় রেকর্ড শাস্তি দেওয়া হয়েছে।’ 

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম আনন্দন পি আর ওরফে বাবু। ২০১৯ থেকে টানা দু’বছর ধরে তারই আত্মীয় ওই ১০ বছর বয়সী শিশুর সঙ্গে একই বাড়িতে থাকতেন বাবু। সেসময় নিজেরই শিশুর ওপর নৃশংস অত্যাচার চালান বাবু। পরে তিরুভালা থানায় বাবুর বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত হয়। আদালতেও দোষী সাব্যস্ত হন বাবু।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস, এনডিটিভি

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর