শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:২৯

সোলাইমানি হত্যা

‘ইরান-যুক্তরাষ্ট্রকে যুদ্ধের মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছিল’

‘ইরান-যুক্তরাষ্ট্রকে যুদ্ধের মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছিল’

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, মার্কিন বাহিনী ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসির কুদস ফোর্সের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে কাপুরুষোচিতভাবে হত্যার মাধ্যমে ইরান এবং আমেরিকাকে যুদ্ধের মুখোমুখি নিয়ে  গিয়েছিল। মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল সিএনবিসিকে দেওয়া বিশেষ সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন জাওয়াদ জারিফ। শুক্রবার জার্মানিতে অনুষ্ঠিত মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের অবকাশে সিএনবিসি টেলিভিশনকে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সাক্ষাৎকার দেন। তিনি বলেন, ‘আমেরিকার কাপুরুষোচিত ও যুক্তিহীন আগ্রাসনের কারণে আমরা যুদ্ধের খুব কাছাকাছি চলে গিয়েছিলাম।’ জাওয়াদ জারিফ বলেন, আমেরিকা জেনারেল সোলাইমানির বিরুদ্ধে যুদ্ধক্ষেত্রে লড়াই করতে না পেরে তারা রাতের অন্ধকারে ড্রোন হামলার মাধ্যমে তাকে হত্যা করেছে। অথচ সোলাইমানি তখন একটি শান্তি মিশনে ছিলেন। আমেরিকা যেভাবে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করেছে তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য উপায় হতে পারে না। জারিফ আরও বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, যিনি সরাসরি হামলার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি ভুল ধারণা করেছিলেন যে, আমেরিকা এ আগ্রাসন চালিয়ে পার পেয়ে  যাবে এবং বর্বর হত্যাকাে র মাধ্যমে আমেরিকার নিরাপত্তা জোরদার হবে। কিন্তু তার সে ধারণা ভুল প্রমাণ  হয়েছে এবং ইরান মার্কিন সামরিক ঘাঁটি আইন আল-আসাদে হামলা চালিয়েছে। আমরা এ হামলার মাধ্যমে দেখিয়ে দিয়েছি যে, ইরানের বিরুদ্ধে আমেরিকা বলদর্পী শক্তি প্রদর্শন করতে পারবে না; ইরানের বিরুদ্ধে কোনোরকম আগ্রাসন চালালে তার জবাব তারা পাবে।’ ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট যে সমস্যায় ভুগছেন তা হচ্ছে তিনি ভুল বার্তা পাচ্ছেন, তাকে ভুল বোঝানো হচ্ছে।


আপনার মন্তব্য