শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ মে, ২০২০ ০০:১৮

ইমাম নিয়োগ নিয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার কড়ালি নওশেরা গ্রামে মসজিদের ইমাম নিয়োগ নিয়ে বিরোধের জের ধরে দুপক্ষের সংঘর্ষে পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে। পরে বাঘা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। গুলিবিদ্ধ পাঁচজনের মধ্যে তিনজনকে উদ্ধার করে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। অপর দুজনের নামে আগের একটি মামলা থাকায় তারা চিকিৎসার জন্য কোথাও ভর্তি না হয়ে গা ঢাকা দিয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে তারা আত্মগোপনে থেকে কোথাও চিকিৎসা নিচ্ছেন। রাজশাহীর বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আহত তিনজনকে এরই মধ্যে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। আহতরা হলেন বাঘা উপজেলার কড়ালি নওশেরা গ্রামের লালু মন্ডলের ছেলে উজ্জল (৩২), সালাম মন্ডলের ছেলে শাকিল (১৭) ও শুকটা মন্ডলের ছেলে আরিফ (২২)। ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, ঈদুল ফিতরের দিন একজন নতুন ইমাম নিয়োগের দাবি তোলে একটি পক্ষ। অন্য পক্ষ বাধা দেয়। এ ছাড়া ওই দিন মসজিদের ভিতরে ও বাইরে নামাজ নিয়েও গ্রামের আবদুল গণি মন্ডল ও মিলনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। নির্দেশনা মেনে গণি মন্ডল মসজিদের ভিতরে নামাজ পড়ানোর কথা বলেন। তবে মিলন বলেন, মসজিদের বাইরে নামাজ পড়াতে। এর জের ধরে ঈদের দিন আবারও দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত আসলাম ও ফারদেশ নামের দুজনকে এরই মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ অন্য দুজনের বিরুদ্ধে আগের মামলা থাকায় তারা আত্মগোপন করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি জানান, ওই ঘটনা একটি সূত্র মাত্র। মূলত কুষ্টিয়া ও বাঘার সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় কড়ালি নওশেরা গ্রামের ফেনসিডিল ব্যবসা নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা চলছিল। এ ঘটনার সূত্র ধরেই উভয়পক্ষের মধ্যে আগের বিরোধ নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এদিকে, রাজশাহীর বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. নিপা বেগম জানান, সংঘর্ষে উজ্জলের পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। গুলির আঘাতে শাকিলের কপাল ও হাত এবং আরিফের পিঠে রক্তক্ষরণ হয়েছে। তাদের শরীরে গুলির আঘাতের চিহ্ন দেখে এয়ারগানের গুলি বলে ধারণা করা হচ্ছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর