শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:৪৮

বিদায় নিল পদ্মা সেতুর ৪১ স্প্যান বসানো দৈত্যাকার ক্রেন ‘তিয়ান ই’

লাবলু মোল্লা, মুন্সীগঞ্জ

বিদায় নিল পদ্মা সেতুর ৪১ স্প্যান বসানো দৈত্যাকার ক্রেন ‘তিয়ান ই’

দীর্ঘ প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরে পদ্মা সেতুকে সেবা দিয়ে আসা ক্রেন ‘তিয়ান ই’ গতকাল মাওয়ার কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে বিদায় নিয়েছে। প্রমত্তা পদ্মার বুকে এই দানবাকৃতির ক্রেনটি সফলভাবে ৪১টি স্প্যান বসানোর দায়িত্বে ছিল। ক্রেনটি বাংলাদেশে এসেছিল সুদূর চীন থেকে। এটি গত রবিবার মাওয়া ছেড়ে গেছে। কিছুদিন চট্টগ্রামে অবস্থান করবে। যাত্রাপথে ক্রেনটিকে পুলিশ, কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনী নিরাপত্তা দেবে। চট্টগ্রামে কাস্টমসের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে আরেকটি বড় মাদার ভেসেলের সহযোগিতায় ক্রেনটি বাংলাদেশ ত্যাগ করবে এবং হংকংয়ের উদ্দেশে রওনা দেবে। গন্তব্যে পৌঁছাতে ক্রেনটি সময় নেবে প্রায় ৩৫ দিন।

সূত্র জানায়, বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ক্রেনটি অপারেশনাল রাখতে পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষের প্রতি মাসে প্রায় ৩০ লাখ টাকা খরচ হতো। বিশ্বসেরা ক্রেনটির দামও কম নয়, প্রায় ২৫০০ কোটি টাকা। ক্রেনটির সক্ষমতা ৩৬০০ টনের অধিক। জানা গেছে, পদ্মা সেতুর জন্য ক্রেনটিকে বিশেষ ডিজাইনে তৈরি করা হয়েছিল। দেশবাসীর স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কাজে বড় অবদান রাখা এই ক্রেন ‘তিয়ান ই’কে বাংলাদেশ মনে রাখবে দীর্ঘদিন। ক্রেনটির বিদায়বেলায় সেতুতে কর্মরতরা আনন্দাশ্রু দিয়ে বিদায় জানিয়েছেন, যেন তার সঙ্গে অনেক দিনের মিতালি সবার। তাকে বিদায় বেলায় সবাই বলছিলেন, বিদায় ‘তিয়ান ই’, তোমাকে মনে রাখবে বাংলাদেশ। বাঙালির গর্বিত  ইতিহাসের তুমিও সাক্ষী। সে যেন বীরের বেশে বাঙালিদের এক রাশ ভালোবাসা আর শুভকামনা নিয়ে বাড়ি ফিরছে তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন শেষে। ৪১টি স্প্যানের এক একটি দেড় শ মিটার লম্বা। বিশালাকার এই সুপার স্ট্রাকচার বা স্প্যান পাঁজা করে নিয়ে ৪২টি পিলারে বসিয়ে বাংলার গৌরবের ইতিহাস গড়তে কালের সাক্ষী হয়েছে ‘তিয়ান ই’।


আপনার মন্তব্য