শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩০ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ জুলাই, ২০২১ ২২:৩৬

বাংলাদেশি নারী ধর্ষণের অভিযোগে বিএসএফ কর্মকর্তা গ্রেফতার

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

Google News

বিএসএফের হেফাজতে থাকা এক বাংলাদেশি নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বিএসএফ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। ওই নারীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত জওয়ানকে গ্রেফতার করেছে পশ্চিমবঙ্গের গাইঘাটা থানা পুলিশ।

থানায় অভিযোগকারী নারীর বক্তব্য অনুযায়ী জানা গেছে, গত বুধবার উত্তর চব্বিশ পরগনার গাইঘাটা থানার খড়ের মাঠ আন্তর্জাতিক সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশে যাওয়ার পথে দুই নারীকে আটক করে বিএসএফের জওয়ানরা। বিএসএফের হেফাজতে থাকাকালীন ওই নারীকে ধর্ষণ করে বিএসএফের এসআই রমেশ্বর কয়াল। ধর্ষিতার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত এসআই রমেশ্বর কয়ালকে তুলে দেওয়া হয় গাইঘাটা থানা পুলিশের হাতে। পরে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

২৫ বছর বয়সী ওই নারী বাংলাদেশের গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া থানার অধীন কুরপলা গ্রামে। তিন বছর ধরে ভারতের গুজরাটের একটি শাড়ির শোরুমে কাজ করছেন তিনি। গত বুধবার বৈধ পাসপোর্ট বা কোন কাগজপত্র ছাড়াই দালালের মাধ্যমে ভারত থেকে বাংলাদেশে যাচ্ছিলেন তিনি এবং তার বান্ধবী। গতকাল আদালতে প্রবেশের পথে বাংলাদেশি ওই নারী জানান, ‘আমি এবং আমার এক বান্ধবী ভারত থেকে বাংলাদেশে যাওয়ার পথে বিএসএফের হাতে ধরা পড়ি, এরপর রমেশ নামে এক বিএসএফ কর্মকর্তা আমাকে একটি ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করেন।’ অভিযুক্ত বিএসএফ কর্মকর্তাকে বনগাঁ মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক দুদিনের পুলিশ রিমান্ডের নির্দেশ দেন। অন্যদিকে দুই নারীকে কারা হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। অভিযুক্ত বিএসএফ কর্মকর্তা জানান, ‘আমি কোনো অন্যায় কাজ করিনি। ওদেরকে (দুই মহিলা) কেবল আটক করে নিয়ে এসেছি। ওই মহিলা অভিযোগ করতেই পারেন, কিন্তু আমি কিছু করিনি। তারা কেন অভিযোগ করেছেন তারাই বলতে পারবেন।’