শিরোনাম
শনিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২৩ ০০:০০ টা

বৃষ্টির পর কমছে তাপমাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঘূর্ণিঝড় মিগজাউমের প্রভাবে বৃহস্পতিবার দিনভর বৃষ্টির পর কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা। এক দিনের ব্যবধানে গতকাল দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কমেছে দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩২ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে কমে ২৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমেছে। ফলে এ মৌসুমে গতকাল প্রথমবারের মতো দেশের অধিকাংশ এলাকার মানুষ কিছুটা শীতের অনুভূতি পেয়েছে। তবে ঢাকার তাপমাত্রা আগের দিনের চেয়ে গতকাল কিছুটা বৃদ্ধি পায়। পুরোপুরি শীতের আমেজ পেতে  আরও কয়েকদিন অপেক্ষা করতে হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। গতকাল আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক বলেন, মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। যার বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। এর প্রভাবে আগামী দুই-তিন দিন অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় কিছুটা বৃষ্টি হতে পারে। সারা দেশে দিনের তুলনায় রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত হ্রাস পেতে পারে। ১১-১২ ডিসেম্বরের পর থেকে তাপমাত্রা দ্রুত কমে শীত জেঁকে বসতে পারে। গতকাল সন্ধ্যায় আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ভোরের দিকে সারা দেশে হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশা পড়তে পারে। আজকের দিবাগত রাতের তাপমাত্রা ১-৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে। আগামীকাল দিনের তাপমাত্রাও কিছুটা কমতে পারে। পরবর্তী পাঁচ দিনে তাপমাত্রা আরও হ্রাস পেতে পারে। গতকাল দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল দিনাজপুরে ১৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সৈয়দপুরে ২৯.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আগের দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ১৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল কক্সবাজারে ৩২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল কক্সবাজারের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কমে দাঁড়ায় ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল ঢাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৯.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা আগের দিন ছিল ১৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সর্বশেষ খবর