শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল, ২০২১ ১৯:০৯
আপডেট : ১৭ এপ্রিল, ২০২১ ১৯:১৪
প্রিন্ট করুন printer

৫১জন আলেম-ওলামার বিবৃতি

'হেফাজতে ইসলাম হচ্ছে দেশে ফেতনা সৃষ্টিকারী ফাসেকের দল'

নিজস্ব প্রতিবেদক

'হেফাজতে ইসলাম হচ্ছে দেশে ফেতনা সৃষ্টিকারী ফাসেকের দল'

স্বনামখ্যাত আলেম ওলামারা এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেছেন, রাসুল (সা.) জীবদ্দশায় ইসলাম ইসলামের মর্মবাণী প্রচার করতে গিয়ে অন্য ধর্মের মানুষদের প্রতি অপমান-আঘাত, বাধার শিকার হয়েও কোনদিন তাদের বিরুদ্ধে কটুক্তি করেননি। বরং সব সময় তাদের প্রতি সহমর্মিতা, বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু আজকে দশে হেফাজতে ইসলাম ধর্ম রক্ষার নামে যেভাবে অন্য ধর্মের মানুষের উপসনালয়ে, তাদের বাড়িঘরে আগুন দিয়েছে তা আমাদের রাসুলের দেখিয়ে যাওয়া পথের পরিপন্থী। তাই এরা কখনোই প্রকৃত মুসলমান হতে পারে না। হেফাজতে ইসলাম হচ্ছে দেশে ফেতনা সৃষ্টিকারী ফাসেকের দল। এদের হাতে আমাদের শান্তির ধর্ম ইসলাম নিরাপদ নয়। 

আজ শনিবার এক যৌথ বিবৃতি ৫১ জন আলেম ওলামা একথা বলেন। 

বিবৃতিতে তারা বলেন, আলেম সমাজের নামে স্বাক্ষরিত একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে হেফাজত। বিবৃতির উদ্দেশ্য বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃত্বের বিভিন্ন অপকর্ম এবং দেশ ও ইসলামবিরোধী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে যেভাবে জনগণ ও আলেম-ওলামারা ফুসে উঠেছে তা আড়াল করা। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে গত মার্চ মাসে প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনকে কেন্দ্র করে ইসলাম রক্ষার নামে হেফাজতে ইসলাম ২৫-২৮ মার্চ পর্যন্ত দেশব্যাপী ধ্বংসাত্মক ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়েছিল। হেফাজতের বর্তমান নেতৃত্ব মাদরাাসার কোমলমতি শিক্ষার্থী ও সাধারণ শিক্ষকদের ভুল প্ররোচনার মাধ্যমে তাদের ব্যবহার করে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ভাঙচুর, সরকারি অফিস-আদালত, ভূমি অফিস,পুলিশ স্টেশন, বিদ্যুৎ অফিস, শিশুদের বিদ্যালয়, সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত যানবাহনে আগুন দিয়েছিল। 

তারা বলেন, তারা সাধারণ মানুষের বাড়ি-ঘরে আগুন দিয়েছিল। এরা মূলত ইসলামের শত্রু। মুখে ইসলামের কথা বলে, ধর্মের দোহাই দিয়ে আসলে হেফাজতে ইসলাম) রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে ব্যস্ত।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত

এই বিভাগের আরও খবর