শিরোনাম
২২ নভেম্বর, ২০২১ ২১:৪০

বাংলাদেশ দূতাবাস-নয়া দিল্লীতে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদযাপন

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ দূতাবাস-নয়া দিল্লীতে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদযাপন

ভারতের নয়া দিল্লীতে আজ সন্ধ্যায় বাংলাদেশ হাই কমিশন যথাযথ মর্যাদায় নানান কর্মসূচির মধ্য দিয়ে সশস্ত্র বাহিনী কর্মসূচি দিবস উদযাপন করেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী, বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বের ৫০ বছর এবং দুই দেশের প্রতিরক্ষা বিষয়ক কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছরে দিবসটির তাৎপর্য ছিল অন্যরকম।

সন্ধ্যায় স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও স্বাধীনতা সংগ্রামে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়।

পরে দূতাবাসের প্রতিরক্ষা বিভাগের আয়োজনে দূতাবাসের প্রতিরক্ষা বিষয়ক উপদেষ্টা মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ এনডিসি, এএফডব্লিউসি, পিএসসি, জি+ এর সূচনা বক্তব্যের মধ্য দিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ভারত সরকারের কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী শ্রী রাজনাথ সিং। এ সময়ে অন্যান্যদের মধ্যে বাংলাদেশ হাই কমিশনের  হাই কমিশনার মুহাম্মদ ইমরান বক্তব্য দেন। দূতাবাস আয়োজিত সশস্ত্র বাহিনী দিবসের কর্মসূচিতে ভারত সরকারের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর এবারই ছিল প্রথমবারের মতো যোগদান। এ সময়ে ভারতের সেনাপ্রধানসহ ৩ বাহিনীর প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বের ৫০ বছরে আজকের আয়োজন এক নতুন মাত্রা পায়।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং তার বক্তব্যে বাংলাদেশ-ভারতের ৫০ বছরের বন্ধুত্বের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বলেন, দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক এখন অনন্য উচ্চতায়। আমাদের প্রতিবেশি দুই দেশের সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে ৫০ বছরের যে কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে - তা নিশ্চয়ই দৃষ্টান্ত হয়ে আছে।

হাই কমিশনার মুহাম্মদ ইমরান বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের ৫০ বছরকে ইতিহাসের ‘মাইলফলক’ উল্লেখ করে বলেন, এ সম্পর্ক বন্ধুত্বের, এ সম্পর্ক ঐতিহাসিক। বর্তমান সরকারের আমলে যা নতুন মাত্রা পেয়েছে।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে সাংবাদিক, বীর যোদ্ধা, লেখক, বুদ্ধিজীবী, কূটনীতিকসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
কেক কাটা ও মধ্যাহ্নভোজের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হয়।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন    

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর