শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ অক্টোবর, ২০২০ ২৩:৪৪

‘গেইল কি ভিনগ্রহের কেউ’

‘১ হাজার ছক্কা- আরেকটি রেকর্ড! ওহ, ম্যান আমি জানি না! ৪১ বছর বয়সেও এভাবে খেলতে পারছি, এজন্য ধন্যবাদ জানাতেই হবে। বছরের পর বছর ধরে অনেক পরিশ্রম ও একাগ্রতার ফল মিলছে। এখনো একইভাবে খেলতে পারছি। আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ।’

মেজবাহ্-উল-হক

‘গেইল কি ভিনগ্রহের কেউ’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২০১৬ সালে দ্বিতীয়বারের মতো টি-২০ বিশ্বকাপের শিরোপা ঘরে তোলে। ভারতে অনুষ্ঠিত সেই আসরে মাত্র একটি ম্যাচেই হেরেছিল ক্যারিবীয়রা, সেটি ‘পুঁচকে’ আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে।

গ্রুপ পর্বে ইংল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণ আফ্রিকার মতো সুপার পাওয়ার দলের বিরুদ্ধে জয় পাওয়া উইন্ডিজকে হারিয়ে নাগপুরের ড্রেসিংরুমে তখন চলছিল আফগান উৎসব।

মাত্র ৬ রানে হেরে যাওয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের সদস্যদের খুবই মন খারাপ! বিষণœ মনে তারা বসেছিলেন নিজেদের ড্রেসিংরুমে। কিন্তু গেইল নিজেদের ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে আফগান ড্রেসিংরুমে উৎসবে যোগ দিলেন। নাচতে শুরু করেন! এই হচ্ছে গেইল। সবার থেকে আলাদা। ব্যতিক্রম এক মানুষ। সব সময়ই আনন্দে থাকতেই পছন্দ করেন।

হাসতে হাসতেই তিনি বাইশগজে ‘বিস্ফোরক’ ব্যাটিংশৈলী প্রদর্শন করেন।

৪২ বছরে পা দিয়েও গেইল বাইশগজে বোলারদের কাছে মূর্তিমান আতঙ্ক! ব্যাটিং করে চলেছেন সেই আগের মতো আগ্রাসী ভঙ্গিতে। বয়সকে যেন আটকে রেখেছেন একটা ফ্রেমে। বয়স বাড়ছে কিন্তু পারফরম্যান্সে কোনো ছাপ পড়ছে না। বয়সকে নিছক সংখ্যা বানিয়ে ফেলেছেন ক্যারিবীয় কিংবদন্তি। তাই তো এখনো জোর গলার বলার সাহস রাখেন ‘আমি অবসর নিচ্ছি না।’

আগের ম্যাচেই ৫১ রানের ইনিংস খেলেছেন, পরের ম্যাচে আবার ৯৯!  মাত্র ৬৩ বলে ৮ ছক্কায় সাজানো এক সাইক্লোন ইনিংস। এই ম্যাচে তো ১ হাজার ছক্কার মাইলফলক স্পর্শ করে ফেলেন। সব মিলে ছক্কা ১ হাজার ১টি। এর মধ্যে ৩৪৯টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন আইপিএলে। সিপিএলে ১৬২টি এবং বিপিএলে ১৩২টি।

টি-২০এর ব্যাটিং রেকর্ডের সবই যেন গেইলের দখলে। শুধু তাই নয়, তার ধারেকাছেও কেউ নেই। ইনিভার্স বসের ১০০১ ছক্কার বিপরীতে দ্বিতীয় স্থানে থাকা স্বদেশি কাইরন পোলার্ডের ছক্কা ৬৯০টি। আর কোনো ব্যাটসম্যানের তো পাঁচশ ছক্কাও নেই। যেখানে গেইলের রান সাড়ে ১৩ হাজার, সেখানে পোলার্ডের রান সাড়ে ১০ হাজার।

মজার বিষয় হচ্ছে, টি-২০-তে গেইলের মোট রানের মধ্যে ১০ হাজার ১৭০ রানই এসেছে ছক্কা-চার থেকে। যা রীতিমতো বিস্ময়কর একটি ব্যাপার।

আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে ছক্কার রেকর্ডের ম্যাচে মাত্র ১ রানের জন্য ২৩তম সেঞ্চুরিটি মিস করেছেন। তাই খানিকটা মেজাজ হারিয়ে ফেলেছিলেন। জোফরা আর্চারের অসাধারণ এক ডেলিভারিতে আউট হওয়ার পর হতাশায় ব্যাট মাটিতে ছুড়ে ফেলেন। তবে সঙ্গে সঙ্গেই গেইল বুঝতে পারেন, এই আচরণ তার সঙ্গে যাচ্ছে না। পরক্ষণেই নিজেকে সামলে নিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন বোলার আর্চারকে।

খুব কাছে গিয়েও সেঞ্চুরি করতে না পারায় ভক্তদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করছেন, ‘অনেকেই সেঞ্চুরির আশা করেছিলেন, কিন্তু মিস হয়ে গেছে। সেজন্য আমি দুঃখিত। আমার ভাবনায় এটি সেঞ্চুরিই।’

তবে ১ হাজার ছক্কার রেকর্ডটি গেইল নিজেও জানতেন না। তাই পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে সঞ্চালকের এক প্রশ্নের জবাবে গেইল বলেন, ‘১ হাজার ছক্কা- আরেকটি রেকর্ড! ওহ, ম্যান আমি জানি না! ৪১ বছর বয়সেও এভাবে খেলতে পারছি, এজন্য ধন্যবাদ জানাতেই হবে। বছরের পর বছর ধরে অনেক পরিশ্রম ও একাগ্রতার ফল মিলছে। এখনো একইভাবে খেলতে পারছি। আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ।’

যতই দিন যাচ্ছে, গেইলের জনপ্রিয়তা যেন বাড়ছেই। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ফ্যানপেজে টি-২০ সম্রাটের ছবি পোস্ট করার কয়েক ঘণ্টার মধেই ৩৫ হাজার লাইক। নানারকম কমেন্ট করে ভক্তরা ইউনিভার্স বসকে প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন। এক ভক্ত অবাক হয়ে লিখেছেন, ‘গেইল কি ভিনগ্রহের কেউ!’


আপনার মন্তব্য