শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২৮

দ্বিতীয় লেগ নিয়ে ধূম্রজাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক

দ্বিতীয় লেগ নিয়ে ধূম্রজাল
Google News

ফুটবলে অন্য ক্লাবের ব্যস্ততা না থাকলেও ঢাকা আবাহনী ও বসুন্ধরা কিংস এএফসি কাপের অপেক্ষায় রয়েছে। বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে কিংস সরাসরি গ্রুপপর্বে খেলবে। যা শুরু হওয়ার কথা ১৪ মে থেকে। অন্যদিকে আবাহনী ২১ এপ্রিল প্লে অফ ম্যাচ খেলবে মালদ্বীপ ঈগলসের বিপক্ষে। ম্যাচে জয়ী হলে ২৮ এপ্রিল আবার তাদের ম্যাচ। এখানে জয়ী হলে ‘ডি’ গ্রুপে চতুর্থ দল হিসেবে খেলবে আবাহনী। এপ্রিলের বাকি সময় ও পুরো মে মাস কাটবে এএফসি কাপের ব্যস্ততায়।

বেশ কটি ক্লাব অনিশ্চয়তার মধ্যে ক্যাম্প বন্ধ করে দিয়েছে। কারণ অর্থ সংকট। লিগ নিয়ে লিগ কমিটি এখনই কোনো সিদ্ধান্ত দিতে ক্লাব প্রতিনিধিদের সঙ্গে বসবে তাও সম্ভব নয়। কারণ দুটি দলেরই এএফসি কাপের ব্যস্ততা রয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা তারা দেশের প্রতিনিধিত্ব করছে। কিন্তু এরপরও যদি অনিশ্চয়তা না কাটে তখন কি ঘটবে? গতকাল বাফুফে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, লকডাউন চলাকালে সব লিগ স্থগিত থাকবে। লকডাউন উঠে গেলেই সাত দিনের সময় দিয়ে পুনরায় লিগ শুরু হবে। এখানে পেশাদার লিগের কথাও উল্লেখ করা হয়েছে। কথা হচ্ছে আগামীকাল থেকে সপ্তাহব্যাপী লকডাউন শুরু হচ্ছে। যা শেষ হবে ২১ এপ্রিল। তাহলে কি সেদিন থেকেই পেশাদার লিগের দ্বিতীয় লেগ শুরু হবে। সেদিন তো আবার এএফসি কাপে আবাহনীর খেলা রয়েছে। ধরলাম এক সপ্তাহ আবাহনীর কোনো খেলা থাকবে না। কিন্তু ঈগলের বিপক্ষে জিতলে ২৮ এপ্রিল তাদের আবার খেলতে হবে। আসলে এ নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি করেছে বাফুফে। কেননা কিছু ক্লাব পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে ক্যাম্প বন্ধ করে দিয়েছে। এখন এক সপ্তাহের প্রস্তুতি নিয়ে এত বড় লিগ খেলা কী সম্ভব? বাফুফে যাই বলুক না কেন ক্লাবগুলো তা মেনে নেবে না। অবশ্য লিগ কমিটির চেয়ারম্যান সালাম মুর্শেদী বলেন, এ নিয়ে কোনো সংশয় দেখছি না। এক সপ্তাহের মধ্যেই আমি ক্লাব প্রতিনিধিদের সঙ্গে বসব। তাদের মতামত  নেব। এরপর হবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।

গতবার ক্লাবগুলো ৫/৬টি ম্যাচের পর লিগ বাতিল হয়েছে। এবার ভিন্ন অবস্থা-প্রথম লেগ শেষ হয়েছে। সেক্ষেত্রে করোনায় দ্বিতীয় লেগ যদি শুরু নাও হয় তাহলে সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যা হবে না। তবে আশা করি লিগ আমরা ঠিকই শেষ করতে পারব। শেখ জামালের আশরাফ উদ্দিন আহমেদ চুন্নু বলেন, লিগ যে হবেই না তাতো বলা যায় না। যদি না হয় সিদ্ধান্ত দেওয়ার অধিকার আছে লিগ কমিটির। তবে তা ক্লাবগুলোর সঙ্গে আলাপ করে এবং বাফুফের নির্বাহী কমিটিতে পাস করাতে হবে। অন্যদিকে ঢাকা আবাহনীর সত্যজিত দাশ রূপু বলেন, আশা করি দেরি হলে দ্বিতীয় লেগ মাঠে গড়াবে। আর মহামারীর ওপর তো কারোর হাত নেই। লিগ না হলে তখন অবশ্যই বাইলজ দেখতে হবে। শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের সালেহ জামান সেলিম বলেন, আমি লিগ কমিটির কাছে অনুরোধ করব অযথা অপেক্ষা না করে দ্রুত সিদ্ধান্ত দেবেন।