শিরোনাম
সোমবার, ৪ মার্চ, ২০২৪ ০০:০০ টা

হঠাৎ কী হলো রোমানের

ক্রীড়া প্রতিবেদক

হঠাৎ কী হলো রোমানের

বাংলাদেশে আর্চারি খেলার জনপ্রিয়তা এবং বিশ্ব অঙ্গনে সাফল্যের পেছনে রোমান সানা বড় ভূমিকা রাখেন। ঘরোয়া আসরে তিনি ছিলেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। খুব অল্প সময়ে তাঁর জনপ্রিয়তা তুঙ্গে ওঠে। আর্চারি খেলা ভালো মতো বোঝে না তারপরও রোমানের নাম ক্রীড়ামোদীদের মুখে মুখে। তাঁর স্ত্রী দিয়া সিদ্দিকিও দেশের সেরা আর্চার। ২০১৯ সালে বিশ্বকাপ আর্চারিতে সাফল্য পেয়ে বাংলাদেশের প্রথম ক্রীড়াবিদ হিসেবে অলিম্পিক গেমসে সরাসরি কোয়ালিফাই করেছিলেন তিনি। ২০২১ বিশ্বকাপ আর্চারিতে দিয়া সিদ্দিকিকে সঙ্গী করে রিকার্ভ মিশ্র দ্বৈতের ফাইনালে উঠে চমক দেখান। পরে অবশ্য রৌপ্য জিতেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাদের। মাঝে শৃঙ্খলা ভাঙার অপরাধে রোমান সানাকে আর্চারি ফেডারেশন নিষিদ্ধ করে। এরপরও বাংলাদেশের আর্চারির বড় ভরসার নাম রোমানই। সেই রোমান হঠাৎ ঘোষণা দিয়েছেন তিনি আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় আর দেশের হয়ে খেলবেন না। জাতীয় দল থেকে অবসরের সিদ্ধান্তের কথা তিনি লিখিতভাবে আর্চারি ফেডারেশনকে জানিয়ে দিয়েছেন। বিষয়টি স্বীকার করেছেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী রাজিব উদ্দিন আহমেদ চপল। প্রশ্ন রোমানের কেন এই আচমকা ঘোষণা? চপল জানান, ‘চিঠিতে রোমান সানা ব্যক্তিগত কারণ উল্লেখ করেছেন।’ এটাই কী মূল কারণ? নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুজন আর্চার জানান, রোমান অনেকটা অভিমানেই জাতীয় দলে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সম্প্রতি ইরাকের রাজধানী বাগদাদে অনুষ্ঠিত এশিয়ান আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপে রোমানের জায়গা হয়নি জাতীয় দলে। পারফরম্যান্স সন্তোষজনক নয় বলেই তাকে রাখা হয়নি। তবে জার্মান কোচ নাকি চেয়েছিলেন রোমানকে। ফেডারেশন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপেই নাকি রোমানের ইরাকের যাওয়া হয়নি। এতে মানসিকভাবে বেশ ভেঙে পড়েন তিনি। তাই স্বেচ্ছায় অবসরের পথ বেছে নেন রোমান।

রোমানকে কী তাঁর সিদ্ধান্ত বদলের আহ্বান জানাবে না ফেডারেশন? এ ব্যাপারে চপল বলেন, ‘চিঠি পেলেও তার বিষয়ে এখনো ফেডারেশনে কোনো আলোচনা হয়নি। রোমান সানা খুবই উঁচুমানের আর্চার। তার চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে অবশ্যই নির্বাহী কমিটির সভা ডাকা হবে। এরপরই বলা যাবে আমরা কী করব।’

 

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর