১১ আগস্ট, ২০২২ ১৫:০৭

দিনাজপুরের ফসলের মাঠ আবারও সবুজের সমারোহ

দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুরের ফসলের মাঠ আবারও সবুজের সমারোহ

দিনাজপুরের ফসলের মাঠ আবারও সবুজে ভরে উঠেছে। যেন সবুজের সমারোহ। জেলার সর্বত্র এখন আমন চারা রোপণে শেষ পর্যায়ে ব্যস্ত কৃষক। আষাঢ় এবং শ্রাবণের দেড় মাস ধরে তেমন বৃষ্টিপাত না হওয়ায় খরার কবলে পড়ে ফসলের মাঠ। কিন্তু প্রায়ই বৃষ্টিপাতের ফলে দাবদাহ কমার পাশাপাশি কৃষকরা এখন আমনের চারা রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছেন। 

কিন্তু আষাঢ় এবং শ্রাবণের মধ্যবর্তী সময় পর্যন্ত জেলায় তেমন বৃষ্টিপাত না হওয়ায় একদিকে যেমন দাবদাহ বৃদ্ধি পায় অন্যদিকে আমনের চারা রোপণও পিছিয়ে যায়। সবাই আকাশের দিকে চেয়ে থাকে বৃষ্টির পানির আশায়। আবার অনেকে শ্যালো মেশিন দিয়ে জমিতে পানি দিয়ে আমন চারা রোপণ করেছে। এক্ষেত্রে তাদের খরচ বৃদ্ধি পেয়েছে। 

চিরিরবন্দরের নশরতপুর গ্রামের কৃষক রফিকুল ইসলাম জানায়, পর্যাপ্ত পানি না হওয়ায় প্রথমদিকেই শ্যালো মেশিন দিয়ে জমিতে পানি দিয়ে আমন চারা রোপণ করেছি। একবিঘা জমিতে পানি দিতে ২ ঘণ্টা লাগে। প্রতি ঘণ্টায় খরচ হয় ১৫০ টাকা। এতে রোপণে খরচ বেড়েছে। আবার সারের দাম বেড়েছে। ডিজেলের দাম বেড়েছে।  

দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, দিনাজপুর জেলায় চলতি মৌসুমে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা ২ লাখ ৬০ হাজার হেক্টর। আর এর জন্য বীজতলা তৈরি করা হয়েছে ১৩ হাজার ৩০০ হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে রয়েছে উচ্চ ফলনশীল, হাইব্রিড ও সুগন্ধি জাতের ধান। দেরিতে শুরু করলেও আমন চারা রোপণ প্রায় শেষ পর্যায়ে। আগামী ১৫ আগস্ট পর্যন্ত রোপা আমনের চারা লাগানো হলেও ফলনে তেমন সমস্যা হবে না বলে জানান জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. নুরুজ্জামান।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

সর্বশেষ খবর