শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ অক্টোবর, ২০২০ ০৪:২৮

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের দাবি

অনলাইন ডেস্ক

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের দাবি

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সফটওয়্যারের মাধ্যমে অনলাইনভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। গতকাল সোমবার রাতে ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মাসুদ রানা ও সাধারণ সম্পাদক রাশেদ শাহরিয়ার পক্ষ থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি করা হয়। বিবৃতিতে সফটওয়্যার ব্যবহার করে অনলাইনের মাধ্যমে চলতি বছর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখান করেন।

বিবৃতিতে ছাত্র নেতারা বলেন, ভর্তি পরীক্ষা আমাদের দেশের শিক্ষার্থীদের জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি পরীক্ষা। এসএসসি ও এইচএসসির ফলাফলের সফলতা-ব্যর্থতা যাচাই হয় এই পরীক্ষার ফলাফলে। আমাদের দেশে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় সেখানে একদিনে ২-৩ ঘণ্টার একটা পরীক্ষায় মেধার মূল্যায়ন করা সম্ভব হয় না। ফলে অবস্থিত কাঠামোর মধ্যেই বৈষম্য বিদ্যমান। এখন এই পরীক্ষা অনলাইনে অনুষ্ঠিত হলে প্রকৃত মেধা যাচাইয়ের সম্ভাবনা একেবারে তলায় গিয়ে ঠেকবে। কারণ সাম্প্রতিক অনলাইন ক্লাস নিয়ে শিক্ষার্থীদের অভিজ্ঞতা সুখের নয়। ভর্তি পরীক্ষার অনলাইন ফরম বিক্রি করে বিরাট অংকের টাকা আদায় করা ছাড়া এ থেকে আর কোনো অর্জনের বিষয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নেই।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আমরা কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়িয়ে, শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার পক্ষপাতী। সকল বিশ্ববিদ্যালয় সমন্বিতভাবে এই পরীক্ষা নিতে পারে, সবগুলো জেলায় অংশগ্রহণকারীর সংখ্যাভেদে সেন্টারের সংখ্যা ঠিক করা যেতে পারে। সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এখন ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ। ফলে পরিকল্পনা করে এই পরীক্ষা নেওয়া অসম্ভব কিছু নয়। বিশ্বের অনেক দেশে এভাবে পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে, তাদের কাছ থেকে আমাদের শিক্ষা নেওয়া উচিত। একইসঙ্গে ভর্তি পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানাই।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর