২ আগস্ট, ২০২১ ২১:২৮

অন্তঃসত্ত্বা যখন চুরির হাতিয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

অন্তঃসত্ত্বা যখন চুরির হাতিয়ার

প্রতীকী ছবি

রাবেয়া আক্তার নেহা (২৩)। আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এরই মধ্যে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন দুইবার এবং এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়েন আরও চারবার। তবুও থেমে নেই তার চুরি। অন্তঃসত্ত্বা হওয়াকেই তিনি তার চুরির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেন। অবশেষে ধরা পড়েন সিসি ক্যামেরায়। প্রতিবারই এই অন্তঃসত্ত্বা থাকার সহানুভূতিকে পুঁজি করে পার পেয়ে যান। 

সোমবার (২ আগস্ট) সকালে নগরের ডবলমুরিং থানাধীন আগ্রাবাদ মৌলভীপাড়ার মানিক ম্যানশন থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। জানা যায়, ভোরে মানিক ম্যানশনে একটি বাসা থেকে মোবাইল ও কাপড় চুরি হয়। পরে এলাকাবাসী সিসিটিভি ফুটেজে রাবেয়াকে শনাক্ত করে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে পুলিশ তাকে আটক করে এবং চুরিকৃত মালামাল উদ্ধার করে।  

ডবলমুরিং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, রাবেয়া  চট্টগ্রামের অন্যতম শীর্ষ চোর। ভোরে কেউ যখন নামাজ পড়তে যায় বা ব্যায়াম করতে যায় তখনই সে চুরি করে। জিজ্ঞাসাবাদে রাবেয়া জানায়, তিনি এই   কায়দায় শতাধিক চুরি করেছেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ধরা না পড়ায় তার বিরুদ্ধে মামলা মাত্র চারটি। বর্তমানে তিনি আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এটা তার চুরিতে বাধা হওয়ার কথা থাকলেও তিনি এটাকেই করেছেন পুঁজি। 

ওসি আরও জানান, গর্ভবতী হওয়ায় সহজেই কেউ তাকে সন্দেহ করে না। আবার ধরা পড়ে গেলেও আলাদা সহানুভূতি কাজ করে। সর্বশেষ চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় গত মার্চে ডবলমুরিং থানায় গ্রেফতার হন রাবেয়া। সোমবার তাকে আবারও গ্রেফতার করা হয়।   


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ আল সিফাত

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর