শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ জানুয়ারি, ২০২০ ১২:১৫

আবরার হত্যা: ৩০ জানুয়া‌রি মামলার অ‌ভি‌যোগ গঠন

অনলাইন ডেস্ক

আবরার হত্যা: ৩০ জানুয়া‌রি মামলার অ‌ভি‌যোগ গঠন
আবরার ফাহাদ

আগামী ৩০ জানুয়ারি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার অ‌ভি‌যোগ গঠ‌নের জন্য দিন ধার্য ক‌রে‌ছেন আদালত।

মঙ্গলবার ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কা‌য়েশ চার্জ‌শিট গ্রহণ ও মামলা আম‌লে নি‌য়ে অ‌ভি‌যোগ গঠ‌নের এই দিন ধার্য ক‌রেন।

আদাল‌তে রাষ্ট্রপ‌ক্ষের আইনজীবী অ‌তি‌রিক্ত পাব‌লিক প্র‌সি‌কিউটর তাপস কুমার পাল এই তথ্য জানান।

এই মামলায় এখনো পলাতক রয়েছেন মোর্শেদুজ্জামান জিসান, এহতেশামুল রাব্বি তানিম ও মোস্তবা রাফিদ। এর ম‌ধ্যে মোস্তবা রা‌ফিদের নাম এজাহা‌রে ছিল না। এছাড়াও মোর্শেদ অমত্য ইসলাম না‌মে পলাতক এক আসা‌মি আদাল‌তে আত্মসমর্পণ ক‌রে জা‌মিন আ‌বেদন ক‌রেন। পরে আদালত জা‌মিন আ‌বেদন নামঞ্জুর ক‌রে তা‌কে কারাগা‌রে পাঠান।

অন্যদিকে, গ্রেফতার ২৫ জনের মধ্যে ২১ জন হলেন, বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল, সহ-সভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিওন, উপ-সমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ, উপ-আইন সম্পাদক অমিত সাহা, শাখা ছাত্রলীগ সদস্য মুনতাসির আল জেমি, মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির ও ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, আবরারের রুমমেট মিজানুর রহমান মিজান, শামসুল আরেফিন রাফাত, মনিরুজ্জামান মনির, আকাশ হোসেন, হোসেন মোহাম্মদ তোহা, মাজেদুর রহমান, শামীম বিল্লাহ, মোয়াজ আবু হুরায়রা, এ এস এম নাজমুস সাদাত এবং এস এম মাহমুদ সেতু। এর মধ্যে হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্তদের সংগঠন থেকে বহিষ্কার করে ছাত্রলীগ।

গ্রেফতারদের ম‌ধ্যে ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, অমিত সাহা, মিজানুর রহমান মিজান, শামসুল আরেফিন রাফাত ও এস এম মাহমুদ সেতু ছাড়া বাকি সবাই এজাহারভুক্ত আসামি।

এর ম‌ধ্যে আটজন আদাল‌তে স্বীকা‌রো‌ক্তিমূলক জবানব‌ন্দি দেন। তারা হলেন, ইফতি মোশাররফ সকাল, মেফতাহুল ইসলাম জিওন, অনিক সরকার, মুজাহিদুর রহমান, মেহেদি হাসান রবিন, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভীর, মনিরুজ্জামান মনির ও এএসএম নাজমুস সাদাত।

প্রসঙ্গত, গত ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে ছাত্রলীগের কিছু উচ্ছৃঙ্খল কর্মীর হাতে নির্দয় পিটুনির শিকার হয়ে মারা যান বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ। এ ঘটনায় পরদিন নিহতের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় একটি মামলা করেন।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য