শিরোনাম
প্রকাশ : ৩১ অক্টোবর, ২০২০ ১৪:০১
আপডেট : ৩১ অক্টোবর, ২০২০ ১৪:১৫

ঢাকা-১৮ আসনে উপনির্বাচন

আওয়ামী লীগ চায় জনগণ ভোটকেন্দ্রে না যাক: এসএম জাহাঙ্গীর

নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগ চায় জনগণ ভোটকেন্দ্রে না যাক: এসএম জাহাঙ্গীর

ঢাকা-১৮ আসনে উপনির্বাচনে বিএনপির মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী এসএম জাহাঙ্গীর অভিযোগ করে বলেছেন, আমাদের প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগ প্রার্থী চাচ্ছে না জনগণ ভোট কেন্দ্রে যাক। এজন্য তারা বিভিন্ন ধরণের সন্ত্রাস করছে, বিভিন্নভাবে আমাদের নেতাকর্মীদের হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। আমরা যেখানে কর্মসূচি দিচ্ছি গত ২৪ অক্টোবর থেকে সেখানে পাল্টা কর্মসূচি দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। অথচ প্রতিটি কর্মসূচি দেয়ার আগে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী পুলিশের অনুমতি নিয়েই কর্মসূচি দেই। যেখানে আওয়ামী লীগ এরইমধ্যে কর্মসূচি করেছে-এমন স্থানে কর্মসূচি দিলেও সেখানেও তারা পাল্টা কর্মসূচি দিচ্ছে।

আজ শনিবার বেলা ১১টা থেকে ৭ নম্বর সেক্টরে চৌরাস্তা, রবীন্দ্র সরণি রোড, হাউজ বিল্ডিং, মাসকট প্লাজার সামনে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন। হাজার হাজার নেতাকর্মী এস এম জাহাঙ্গীরের গণসংযোগে অংশ নেন। "খালেদা জিয়ার ভয় নাই, রাজপথ ছাড়ি নাই," "ভোট দিবেন কিসে, ধানের শীষে," "মা বোনদের বলে যাই, ধানের শীষে ভোট চাই" ইত্যাদি স্লোগানে স্লোগানে নেতাকর্মীরা মুখরিত করে পুরো এলাকা।

ধানের শীষের প্রার্থী জাহাঙ্গীর বলেন, ভোটাররা ভোট দেয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে আছে। আবার এরই মধ্যে ধানের শীষের পক্ষে জনগণের সাড়া দেখে আওয়ামী লীগ ভয়ে ভীত হয়ে পড়েছে। যার কারণে জনগণ যাতে ভোট কেন্দ্রে না যায় সেজন্য আওয়ামী লীগ প্রার্থী সবধরণের কর্মকাণ্ড করছে, পরিকল্পনা করছে। 

৯ম দিনের মতো আজ শনিবার সকাল ১০টায় তুরাগ থানার রানাভোলা থেকে এস এম জাহাঙ্গীর হোসেনের ধানের শীষের পক্ষে গণসংযোগ শুরু কথা ছিল। পুলিশের অনুমতি নিয়ে এ কর্মসূচি দেয়া হয়। সে অনুযায়ী, দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতৃবৃন্দ বিএনপির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক, যুবদলের সাংগঠনিক মামুন হাসানসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা রানাভোলায় জামায়েতও হন। কিন্তু আওয়ামী নেতাকর্মী ও প্রশাসনের লোকজন তা ছত্রভঙ্গ করে দেয়। সরকারের সকল বাধা উপেক্ষা করে জীবন দিয়ে হলেও জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করার ঘোষণা দেন বিএনপি প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন।

পরে অন্য এলাকায় গণসংযোগ করেন এস এম জাহাঙ্গীর। এসময় চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, আব্দুস সালাম, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক, যুব বিষয়ক সহ-সম্পাদক মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, মামুন হাসান, সালাউদ্দিন ভূঁইয়া শিশির, রাজিব আহসান, আকরামুল হাসান মিন্টু, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান  প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর