শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ এপ্রিল, ২০২১ ০৮:৪৪
প্রিন্ট করুন printer

অপহরণ করে টাকা আদায়, পুলিশের হাতে ধরা র‍্যাবের চারজন

নিজস্ব প্রতিবেদক

অপহরণ করে টাকা আদায়, পুলিশের হাতে ধরা র‍্যাবের চারজন
প্রতীকী ছবি
Google News

রাজধানীতে এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে মুক্তিপণ নেওয়ার অভিযোগে এলিট ফোর্স র‌্যাবের চার সদস্য ও এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পরে র‌্যাব সদস্যদের স্ব স্ব বাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে রানী বেগম নামে ওই নারীকে আদালতের নির্দেশে দুই দিনের রিমান্ডে নিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। এই অপহরণ চক্রে সাতজন ছিলেন বলে জানা গেছে।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, টাকা আদায়ের অভিযোগে গ্রেফতার পাঁচজনের বিরুদ্ধে থানায় নিয়মিত মামলা হয়েছে। গ্রেফতার চার র‌্যাব সদস্যের মধ্যে তিনজন সেনাবাহিনী ও একজন বিমানবাহিনীর হওয়ায় তাদের নিজ নিজ বাহিনীর কাছে তুলে দেওয়া হয়েছে। তাদের বিচার নিজ নিজ বাহিনীর আইনকানুন অনুযায়ী হবে। 

হাতিরঝিল থানা এবং মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটে মামলাটি রেকর্ড করে হাতিরঝিল থানা পুলিশ। রাইয়ানা হোসেন নামের এক তরুণী অভিযোগ করেন, তার বড়ভাই তামজিদ হোসেন (২৭) তাদের মীরবাগের বাসা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় উত্তরায় যাওয়ার কথা বলে বের হন। আনুমানিক দুপুর ১২টার দিকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি তাকে ফোন করে র‌্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে জানান, তার ভাই তামজিদ র‌্যাবের হেফাজতে আছেন। থানা পুলিশ বা ডিবি পুলিশকে জানালে তার ভাইকে প্রাণে মেরে ফেলা হবে। ওই অজ্ঞাত ব্যক্তির ফোনে আরও বলা হয়- তার নামে অস্ত্র ও মাদক মামলা হবে। ভাইকে ক্রসফায়ার থেকে বাঁচাতে চাইলে, দুই কোটি টাকা রেডি করেন। এর কিছুক্ষণ পর সেই ব্যক্তি মোবাইল ফোনে আমার ভাইকে মারধরের শব্দ শোনায়। আমার ভাই কাঁদতে কাঁদতে জানায়, তাকে চোখ বেঁধে গাড়িতে তুলে বেদম মারধর করছে। সে বাঁচার আকুতি জানায়। একপর্যায়ে সেই ব্যক্তি ১৫ লাখ টাকা দাবি করেন। আমাদের কাছে কোনো টাকা নেই জানালে সেই ব্যক্তি নগদ ১২ লাখ টাকা নিয়ে রাজধানীর একটি অভিজাত মার্কেটে যেতে বলে।

হাতিরঝিল থানা সূত্র বলছে, মামলায় গ্রেফতার ল্যান্স করপোরাল দুলাল মৃধা, সৈনিক রোকন মিয়া, ল্যান্স করপোরাল মো. রনি ও সৈনিক সাগরকে সংশ্লিষ্ট বাহিনীর কাছে সোপর্দ করা হয়েছে বলে আদালতকে জানানো হয়েছে। বিজিবির এক সদস্য পলাতক রয়েছেন। র‌্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, অপহরণের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাবের চার সদস্যকে গ্রেফতারের বিষয়টি পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ঘটনাটি তারা তদন্ত করে দেখছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ

এই বিভাগের আরও খবর