শিরোনাম
প্রকাশ : ৫ মে, ২০২১ ১৯:৫৮
আপডেট : ৫ মে, ২০২১ ২০:০৮
প্রিন্ট করুন printer

বরিশালে ট্রাফিক পরিদর্শককে লাঞ্ছিত করায় দুই পুলিশ সদস্য প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশালে ট্রাফিক পরিদর্শককে লাঞ্ছিত করায় দুই পুলিশ সদস্য প্রত্যাহার
Google News

বরিশাল জেলা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের এক পরিদর্শককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে দুই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে। সিনিয়র কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় জেলা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের সার্জেন্ট মো. আসাদ ও টিএসআই আইউব আলীকে নিজ নিজ কর্মস্থল থেকে জেলা পুলিশ লাইনে ক্লোজড (প্রত্যাহার) করা হয়েছে।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ সরদার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গত ৩০ এপ্রিল সকালে ট্রাফিক পরিদর্শক ফিরোজকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার পর তাকে পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

জেলা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ সূত্র জানায়, সার্জেন্ট মো. আসাদ ও টিএসআই আইউব আলী বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কের বাকেরগঞ্জ উপজেলার ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় দায়িত্ব পালন করতেন। বোয়ালিয়ায় দায়িত্বপালন করতেন সার্জেন্ট মো. সুজন ও টিএসআই মো. জলিল। ডিউটির স্পট নিয়ে গত ২৯ এপ্রিল ওই দুই গ্রুপের মধ্যে ঝামেলা হয়। তাদের বিরুদ্ধে ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ডিউটিকালীন স্থানে বিভিন্ন যানবাহন থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগ ওঠে।

বিষয়টি ট্রাফিক ইন্সেপেক্টর মো. ফিরোজ জানতে পেরে ঘটনার দিন সকালে ডিউটি স্পটে গিয়ে তাদের চারজনের সাথে কথা বলেন। এরপর নির্ধারিত সময় ব্যতিত ডিউটিতে না আসা এবং যানবাহন থেকে চাঁদাবাজি না করার নির্দেশ দেন।  

এ নিয়ে সার্জেন্ট আসাদ ও টিএসআই আইউবের সাথে পরিদর্শক মো. ফিরোজের বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে অভিযুক্তরা ট্রাফিক কর্মকর্তা ফিরোজকে ধাক্কা দেন এবং তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। এতে পরিদর্শক ফিরোজ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত বরিশাল পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ সরদার বলেন, সার্জেন্ট মো. আসাদ ও পিএসআই আইউব আলীর বিরুদ্ধে পরিদর্শক ফিরোজকে ধাক্কা দেওয়াসহ বিভিন্নভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়ায় তাদের পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর