২৮ জুলাই, ২০২২ ১৫:৩৯

দুই দশক পরে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলায় দুইজনের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

দুই দশক পরে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলায় দুইজনের যাবজ্জীবন

রংপুরে দীর্ঘ দুই দশক পর নাবালিকা মেয়েকে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলায় দুই আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- রফিকুল ইসলাম (৪৫) ও শাহ আলম (৪২)। 

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মোস্তফা কামাল এ রায় দেন। রায় প্রদানের সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিল। পরে পুলিশী পাহারায় তাদের জেল-হাজতে নিয়ে যাওয়া হয়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০০২ সালের ১৪ মে ওই নাবালিকা মিঠাপুকুর উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নে তার বড় বোনের বাড়িতে বেড়াতে যান। ঘটনার দিন নাবালিকার দুলাভাইসহ বাড়ির অন্যান্য পুরুষেরা হাটে কৃষি পণ্য বিক্রির জন্য যান। রাতে বড় বোন রান্না কাজের সহযোগিতার জন্য ওই নাবালিকাকে বাড়ির পাশে টিউবওয়েল থেকে পানি আনার জন্য বলেন। সে পানি আনতে গেলে রফিকুল ও শাহ আলম পেছন থেকে মুখ চেপে ধরে তাকে বাড়ির থেকে অদূরে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা ২০০২ সালের ১৫ মে আদালতে রফিকুল ও শাহ আলমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ওই বছরের ৩০ জুন মামলার তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা এস আই খলিলুর রহমান দুই আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট আদালতে দাখিল করেন। মামলায় ৮ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও যুক্তি-তর্ক শেষে বিচারক দুইজনকে দোষী সাব্যস্ত করে অপহরণের অভিযোগে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেন।

অন্যদিকে ধর্ষণের অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং এক লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দেন। আদালত উভয় দণ্ডই এক সাথে পালন করার আদেশ দেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি খন্দকার রফিক হাসনাইন বলেন, এ রায়ে বাদী পক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর