Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ১৬:১৫
আপডেট : ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ১৬:১৮

অপরাধী সনাক্ত ও সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে রংপুরে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

অপরাধী সনাক্ত ও সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে রংপুরে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন

অপরাধী সনাক্তকরণসহ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এবং সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে রংপুর মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ ৩২টি পয়েন্টে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরপিএমপি) কন্ট্রোলরুমে প্রযুক্তি নির্ভর এই সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন রংপুর মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশন মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা ও আরপিএমপি কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ।

এসময় মেয়র বলেন, রংপুর মহানগরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলো আপাতত ৩২টি সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে আগামী পাঁচ মাসের মধ্যে আরো ৬৮টি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। এতে করে ২০৩.৫ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের বিশাল এই সিটি কর্পোরেশন এলাকার অপরাধ নিয়ন্ত্রণসহ চুরি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ সংঘটিত বিভিন্ন অপরাধে জড়িতদের দ্রুত সময়ের মধ্যে সিসিটিভির ফুটেজের মাধ্যমে  সনাক্ত করা সহজ হবে। তখন পুলিশও প্রযুক্তি নির্ভর তদন্ত মানুষকে দ্রুত আইনি সেবা দিতে পারবে।

আরপিএমপি কমিশনার বলেন, আমরা সিটির অর্থিক ও কারিগরি সহযোগিতায় আজ থেকে প্রযুক্তি নির্ভর তদন্ত শুরু করছি। যৌথভাবে শুরু হওয়া কাজের ধারাবাহিকতা আগামীতে অব্যহত থাকবে। তিনি বলেন, আমি চাই শান্তিময় নিরাপদ নগরী উপহার দিতে আর মেয়র চান পরিচ্ছন্ন বসবাসযোগ্য নগরী। সংযোজিত নতুন সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে পুলিশের কেউ দায়িত্ব ফাঁকি দিলে যেমন চিন্থিত করা যাবে। তেমনি কোথাও কোন অপরাধ সংঘটিত হলে ফুটেজ দেখে দ্রুত অপরাধীকে সনাক্তকরণও সম্ভব হবে। এছাড়া কন্ট্রোলরুম থেকে সিসিটিভি পর্যবেক্ষণ করে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে মনিটরিং করা যাবে।

উদ্বোধনী এ আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র মাহমুদুর রহমান টিটু, কাউন্সিলর সেকেন্দার আলী, মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (এডিশনাল ডিআইজি) মোহাম্মদ আবু সুফিয়ান, উপ-পুলিশ কমিশনার (হেডকোয়ার্টর্স) মহিদুল ইসলাম, উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) কাজী মুত্তাকী ইবনু মিনান, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (হেডকোয়ার্টর্স)  আবদুল্লাহ্-আল-ফারুক, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ)  প্রমুখ।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য