শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ অক্টোবর, ২০২০ ২৩:৫৭

চট্টগ্রাম পুলিশের বিতর্কিত সদস্যদের তালিকা হচ্ছে

ডোপ টেস্ট শুরু শিগগিরই

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ (সিএমপি) ও রেঞ্জ পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্টের (মাদক পরীক্ষা) উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে মাদকসেবনকারী পুলিশ সদস্যদের তালিকাও তৈরি করা হচ্ছে। পাশাপাশি বিতর্কিত কর্মকান্ডে জড়িত পুলিশ সদস্যদেরও আরেকটা তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। ডোপ টেস্ট ও বিতর্কিত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তারা। সিএমপির কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর বলেন, ‘সিএমপির পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্টের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। রেজাল্ট হাতে পাওয়ার পর আনুষ্ঠানিকভাবে এ বিষয়ে জানানো হবে। যাদের ডোপ টেস্টের ফলাফল পজিটিভ আসবে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে পুলিশ প্রশাসন।’ চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘সন্দেহভাজন পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট করানোর জন্য তালিকা তৈরির নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কিট এলে তালিকাভুক্ত পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট করানো হবে।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কোনোভাবেই পুলিশে অনিয়ম-দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। প্রয়োজনে রেঞ্জকে ঢেলে সাজানো হবে। কক্সবাজার জেলা থেকে যে পরিবর্তনের ধারা শুরু হয়েছে তা পুরো রেঞ্জে প্রয়োগ করা হবে।’

জানা যায়, পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে মাদকসেবন ও মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়া, মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আঁতাত এবং মাদক ব্যবসায় প্রত্যক্ষ সহযোগিতার অভিযোগ রয়েছে কিছু পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে। যা সরকারি বিভিন্ন সংস্থার করা প্রতিবেদনেও উঠে এসেছে। পুলিশের মধ্যে মাদকের আগ্রাসন ঠেকাতে প্রাথমিকভাবে ডোপ টেস্টের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে মাদক ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া অপরাধী চক্রের সঙ্গে আঁতাত, জায়গাজমি দখল-বেদখল এবং অপরাধ আখড়ায় সম্পৃক্ততার অভিযোগ রয়েছে কতিপয় পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে। তাদেরও তালিকা তৈরি করছে চট্টগ্রাম রেঞ্জ ও মহানগর পুলিশ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিএমপির এক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলেন, ‘সম্প্রতি ক্রাইম কনফারেন্সে মাদকসেবনকারী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। কোনো পুলিশ সদস্যের ডোপ টেস্টের রেজাল্ট পজিটিভ এলেই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান কমিশনার। মাদকসেবনকারী পুলিশ সদস্যদের ৭ দিনের আলটিমেটামও দেন সিএমপি কমিশনার।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর