শনিবার, ১০ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

চমেক হাসপাতাল

অর্থোপেডিক বিভাগে অজ্ঞাত রোগীদের কুইক মেডিসিন কর্নার

রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগে আগত অজ্ঞাত রোগীদের সেবা দ্রুত নিশ্চিত করতে এবার চালু হচ্ছে কুইক মেডিসিন কর্নার। এ কর্নারটি রাতদিন ২৪ ঘণ্টাই খোলা থাকবে। থাকবে দুর্ঘটনায় আহত রোগীদের প্রাথমিক প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা। অজ্ঞাত রোগীদের সেবক খ্যাত প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম নেসারের উদ্যোগে হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগের তিনটি ইউনিটে একযোগে কর্নারটি চালু করা হবে। প্রাথমিক প্রক্রিয়া শেষ, আগামী সপ্তাহে এটি চালুর কথা রয়েছে। এর আগে ২০১৮ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর চমেক হাসপাতালের নিউরোসার্জারি ওয়ার্ডে অজ্ঞাত রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে একটি কর্নার চালু করা হয়েছিল।  অজ্ঞাত রোগীদের সেবক খ্যাত প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম নেসার বলেন, কুইক মেডিসিন কর্নারে একটি আলমিরাতে জরুরি ওষুধ, অস্ত্রোপচার সরঞ্জাম ও পরিধেয়-সামগ্রী থাকবে। সেখান থেকে ওয়ার্ডে আসা অজ্ঞাত ও জরুরি রোগীরা প্রয়োজনীয় সেবা পাবেন। প্রাথমিক প্রস্তুতি প্রায় শেষ। আগামী সপ্তাহে এটি চালু করা হবে। এর আগে ২০১৮ সালে নিউরোসার্জারি বিভাগে একটি মেডিসিন কর্নার চালু করা হয়েছিল। সেখান থেকে এরই মধ্যে প্রায় ৫৫০ জন রোগী বিনামূল্যে সেবা গ্রহণ করেছেন। একসঙ্গে বাস দুর্ঘটনায় আহতদের এখান থেকেই সেবা দেওয়া হয়েছিল।  জানা যায়, ২০০৭ সালে নেসারের বাবা শামসুল হক অনেকটা চিকিৎসার অভাবে চমেক হাসপাতালে মারা যান। এরপর থেকে নেসার নিজ উদ্যোগেই অজ্ঞাত রোগীদের সেবা দেওয়া শুরু করেন। ২০০৭ সাল থেকে এখন পর্যন্ত সাত শতাধিক অজ্ঞাত রোগীকে চিকিৎসা ও স্বজনের হাতে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। চমেক হাসপাতালের মতো ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও অজ্ঞাত রোগীদের জন্য এ ধরনের সেবা দেওয়া হচ্ছে।