শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০১:৫৯

দিয়াজ হত্যা মামলা

সহকারী প্রক্টর রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

সহকারী প্রক্টর রিমান্ডে

ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরী হত্যা মামলায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সাবেক সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেন চৌধুরীকে দুই দিন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শনিবার হেফাজতে নিয়েছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। শনিবার সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম কারাগার থেকে তাকে সিআইডির চট্টগ্রাম কার্যালয়ে নেওয়া হয়। তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন খান বলেন, দিয়াজ হত্যা মামলায় আনোয়ার হোসেন চৌধুরীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালত দুই দিন রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। শনিবার তাকে হেফাজতে নিয়ে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছি। ২০১৬ সালের ২০ নভেম্বরে লাশ উদ্ধারের পর দিয়াজের পরিবার দাবি করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মাণকাজের দরপত্র নিয়ে বিরোধের জেরে তাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

 তবে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রথম ময়নাতদন্তের পর ২৩ নভেম্বর চিকিত্সকরা আত্মহত্যার কথা বলেন। ওই ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করে ২৪ নভেম্বর দিয়াজের মা জাহেদা আমিন বাদী হয়ে ১০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। মামলায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সদ্য বাতিল কমিটির সভাপতি আলমগীর টিপু, তত্কালীন সহকারী প্রক্টর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আনোয়ার হোসেনকেও আসামি করা হয়। পরে আদালতের নির্দেশে দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের জন্য দিয়াজের মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়। এর আগে দিয়াজ খুনের অভিযোগ এফআইআর হিসেবে রেকর্ড করার জন্য চট্টগ্রামের মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে একাধিকবার আবেদন করা হয়; সে সময় আবেদন খারিজ করে দিয়ে এ নিয়ে জজ আদালতে রিভিশন করার পরামর্শ দেয় আদালত। এরপর দিয়াজ ইরফান চৌধুরীকে খুনের অভিযোগ ‘এফআইআর’ হিসেবে নিতে গত ২৩ অক্টোবর হাটহাজারী থানাকে নির্দেশ দেয় চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা জজ মো. নূরে আলম। এদিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এই ছাত্রলীগ নেতার দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হওয়ার পর চিকিত্সকের বরাত দিয়ে গত ৩০ জুলাই সিআইডি সর্বপ্রথম জানায়, দিয়াজের মৃত্যু শ্বাসরোধজনিত হত্যাকাণ্ড। তবে দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন সংশ্লিষ্টরা। দিয়াজের মৃত্যু-রহস্য এখনো উন্মোচন হয়নি। এরই মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মাণকাজের দরপত্র নিয়ে বিরোধ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগে পড়ুয়া এক মেয়ে বন্ধুকে নিয়ে দিয়াজের জটিলতা নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ এসেছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর