বুধবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

পাকা রাস্তার ওপর বাঁশের সাঁকো, জনদুর্ভোগ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

পাকা রাস্তার ওপর বাঁশের  সাঁকো, জনদুর্ভোগ

মানিকগঞ্জ শহরের পশ্চিম সেওতা এলাকার পাকা সড়কের ওপর বাঁশের সাঁকো বানিয়ে পার হচ্ছেন পথচারীরা। মাত্র ২৫ মিটার ধসে পড়া রাস্তার জন্য দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সড়কের সুফল থেকে বঞ্চিত তারা। এলাকাবাসী জানান, সেওতা মসজিদ থেকে পশ্চিম সেওতা রাস্তাটি ২০১৭ সালে পৌরসভা প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে সংস্কার করে। সংস্কারের এক বছর পরই ২৫ মিটার ধসে চলার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। তবুও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল অব্যাহত রাখেন এলাকাবাসী। জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি মানিকগঞ্জ শহর, ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক, বান্দুটিয়াসহ বিভিন্ন স্থানে যাওয়ার অন্যতম মাধ্যম। লোকজনের দাবির মুখে স্থানীয় কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদ নিজ অর্থায়নে পাকা রাস্তার ধসে যাওয়া অংশে বাঁশের সাঁকো তৈরি করে দেন। এতেও ঝুঁকিমুক্ত হয়নি রাস্তাটি। সাঁকোর স্থান দিয়ে মোটরসাইকেল, রিকশা চলাচল-তো দূরের কথা বাইসাইকেল চালিয়েও যাওয়া যায় না। স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল বাতেন ও সাহাবউদ্দিন বলেন, পাঁচ বছর ধরে ভোগান্তি পোহাচ্ছেন লোকজন। দেখার যেন কেউ নেই। লোকজন মসজিদে যেতে পারেন না, ছেলে-মেয়ে স্কুলে যেতে পারে না। এই রাস্তাটুকু মরণফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, নিম্নমানের কাজের জন্য এক বছরের মধ্যে পাকা রাস্তা ধসে গেছে। স্থানীয় কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমার সময়েই প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে রাস্তাটি পাকা করা হয়েছিল। পাশে খাল থাকায় ২৫ মিটার রাস্তা ধসে গেছে। আমি নিজের টাকা দিয়ে                 বাঁশের সাঁকো করে দিয়েছি। তারপরও চলাচলের উপযোগী হয়নি। বিষয়টি নিয়ে মেয়রের সঙ্গে আলাপ করে স্থায়ী ব্যবস্থা করা হবে। মানিকগঞ্জ পৌর মেয়র রমজান আলী বলেন, কিছুদিন হলো আমি দায়িত্ব পেয়েছি। রাস্তাটি কিছুদিনের মধ্যেই মেরামত করে দেওয়া হবে।

সর্বশেষ খবর