Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ মে, ২০১৯ ১৭:৩৫

বগুড়ায় খাদ্য গুদামে নেওয়ার পথে ৯ লাখ টাকার চাল ছিনতাই

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বগুড়ায় খাদ্য গুদামে নেওয়ার পথে ৯ লাখ টাকার চাল ছিনতাই

বগুড়ায় অটোরাইস মিল থেকে সরকারি খাদ্য গুদামে নেওয়ার পথে ট্রাক থেকে ৯ লাখ টাকা মূল্যের চাল ছিনতাই করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ট্রাকের দুই চালক এবং এক হেলপারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। 

রবিবার রাতে জেলার কাহালু উপজেলার তিনদীঘি কাউরা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

এদিকে সোমবার সকালে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার বনানী দ্বিতীয় বাইপাস থেকে ট্রাকটি পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তবে ছিনিয়ে নেওয়া চাল উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ট্রাকের দুই চালক এবং এক হেলপারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলেন, জাকির হোসেন, সোহেল ও সোহাগ।

ক্ষতিগ্রস্ত চাল ব্যবসায়ী দুপচাঁচিয়ার বাসিন্দা শাহিনুর রহমান জানান, তার নিজস্ব অটোরাইস মিল রয়েছে। কিন্তু সেটি বন্ধ থাকায় তিনি বগুড়ার নামুজা এলাকার কাজীব অ্যান্ড ব্রাদার্স নামে একটি অটোরাইস মিলে ধান দিয়ে ২৫ মেট্রিক টন চাল তৈরি করে নেন। ওই চালগুলো দুপচাঁচিয়া উপজেলা খাদ্য গুদামে সরবরাহের জন্য রবিবার রাতে ভাড়া করা একটি ট্রাকে তুলে দেন। পরে সোমবার ভোরে ওই ট্রাকের চালক জাকির হোসেন তাকে ফোন করে জানান, ট্রাকটি দুপচাঁচিয়া যাওয়ার পথে কাহালুর তিনদীঘি কাউরা বাজার এলাকায় ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছে। পরে বিষয়টি তিনি কাহালু থানা পুলিশকে জানান।

কাহালু থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, ট্রাকটি জাকির হোসেনের পরিবর্তে সোহেল নামে অপর এক ব্যক্তি চালিয়ে নিয়ে আসছিল। হেলপার ছিল সোহাগ নামে অপর এক ব্যক্তি।

তিনি আরো বলেন, বদলি চালক সোহেলের বর্ণনা অনুযায়ী ট্রাকটি রাত সাড়ে ৯টার দিকে তিনদীঘি কাউরা বাজার এলাকায় পৌঁছার পর পরই ছিনতাইকারীরা তাদের গতিরোধ করে। এরপর তাদেরকে বেঁধে চালভর্তি ট্রাক নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে সোমবার সকাল ১০টার দিকে ট্রাকটি জেলার শাজাহানপুর উপজেলার বনানী দ্বিতীয় বাইপাস এলাকায় চাল শূন্য অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, ছিনিয়ে নেওয়া চাল উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ট্রাকের মূল চালক জাকির হোসেন, সোহেল এবং হেলপার সোহাগকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি তবে প্রস্তুতি চলছে।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য