শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২২:১২

বাংলা চ্যানেল দু’বার পাড়ি দিয়ে রেকর্ড করলেন ভারতীয় মেয়ে তাহরিনা

আব্দুস সালাম, টেকনাফ (কক্সবাজার) :

বাংলা চ্যানেল দু’বার পাড়ি দিয়ে রেকর্ড করলেন ভারতীয় মেয়ে তাহরিনা

এবার বাংলা চ্যানেল সাঁতরিয়ে ডাবল ক্রস করার রেকর্ড করলেন ভারতীয় দুরপাল্লার সাঁতারু তাহরিনা নাসরিন। তিনি ৮ ঘণ্টা ১৩ মিনিট সময় নিয়ে টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ থেকে সেন্ট মার্টিনস ‘বাংলা চ্যানেল’ হিসেবে খ্যাত জলপথ দ্রুততম সময়ে দু’বার পাড়ি দিয়েছেন। 

রবিবার ভোর ৬টা ১২মিনিটে তিনি সেন্টমার্টিন থেকে সাঁতার শুরু করে ৩ ঘণ্টা ৪৭ মিনিট সময় নিয়ে ১৬.১ কিলোমিটারের বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে শাহপরীর দ্বীপ পৌঁছেন। এরপর বিরতিহীনভাবে ফের সেন্ট মার্টিনসের উদ্দেশ্যে সাঁতার শুরু করেন। ফিরতি সাঁতারে তিনি ৪ ঘণ্টা ২৬ মিনিট সময় নিয়ে বেলা ২ টা ২৫ মিনিটে সেন্টমার্টিন পৌঁছেন।
 
তাহরিনা জানান, এর আগে আমি ২০১৫ সালে বিশ্বের প্রথম মুসলিম নারী হিসেবে ইংলিশ চ্যানেল জয় করেছিলাম। এছাড়া ২০১৮ সালে দ্রুততম নারী হিসেবে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়েছিলাম। সেবার প্রতিজ্ঞা করেছিলাম চ্যানেলটি ডাবল ক্রস করার। আজকে আমার ইচ্ছা পূরণ হয়েছে। আমার বাবাসহ যারা অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

তাহরিনার এই সাঁতার অভিযানের আয়োজক এভারেস্ট একাডেমির সিইও রাফাহ উদ্দীন সিরাজি বলেন, প্রথম নারী হিসেবে তাহরিনা বাংলা চ্যানেল ডাবল ক্রস (৩২.২ কি.মি) সাঁতারটি সম্পন্ন করেছেন। এক্ষেত্রে তিনি ৮ ঘণ্টা ১৩ মিনিট সময় নিয়ে দ্রুততম সময়ে ডাবল ক্রসের রেকর্ডটিও নিজের করে নেন। এর আগে এই চ্যানেলটি ২০১৮ সালে ৯ ঘণ্টা ১০ মিনিটে ডাবল ক্রস করেছিলেন ভারতের পুরুষ সাঁতারু সাম্পান্না রমেশ।

এভারেস্ট একাডেমির আয়োজনে তাহরিনার এই সাঁতার অভিযানে রেফারির দায়িত্ব পালন করেছেন ফিফা রেফারি তোফাজ্জল হোসেন বাচ্চু, নেভিগেটর ও সুপারভাইজর হিসেবে ছিলেন রাফাহ উদ্দীন সিরাজী, সহযোগিতায় ছিলেন নর্থ আলপাইন ক্লাব বাংলাদেশ, ট্যুর অপারেটর হিসেবে এলিগ্রো ট্যুরস, মেডিকেল সাপোর্টে হেলদি হোম বাংলাদেশ এর ডা. মহসিন কবির লিমন, লাইফ গার্ড হিসেবে সিআইপিআরবি এর সি সেইফ সুইমিং এর লাইফ গার্ড মো. কামাল এবং পর্যবেক্ষক হিসেবে ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রের ম্যানেজার আরিফুল ইসলাম।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

close